ঢাকা, শুক্রবার 27 November 2020, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
Online Edition
  • বাংলাদেশ কালচারাল একাডেমির  উদ্যোগে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা

    বাংলাদেশ কালচারাল একাডেমির  উদ্যোগে বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা

      বাংলাদেশ কালচারাল একাডেমি-বিসিএ এরর উদ্যোগে গত শনিবার নিজস্ব মিলনায়তনে মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে আলোচনা, দেশের গান ও আবৃত্তি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। বিসিএর সভাপতি শরীফ বায়জীদ মাহমুদের সভাপতিত্বে ও সহ-সাধারন সম্পাদক তাসবীর লসকরের পরিচালনায় অনুিষ্ঠত এ অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক আবেদুর রহমান, নাট্যকার শাহ আলম নূর,গল্পকার ইবরাহীম বাহারী, কবি আমিনুল ইসলাম, শিল্পী ইব্রাহিম মন্ডল ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের বিজয় র‌্যালি আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

    ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের বিজয় র‌্যালি আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত

    ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মহান বিজয় দিবস ২০১৭ উপলক্ষে গত শনিবার আলোচনা সভা, পুরস্কার বিতরণী ও ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ঐতিহাসিক দুই গম্বুজ মসজিদ

    ঐতিহাসিক দুই গম্বুজ মসজিদ

    শাহজাদপুরের প্রাচীন মসজিদগুলোর মধ্যে ছয়আনীপাড়া শাহ বদর মসজিদ অন্যতম। মসজিদটি শাহজাদপুর থানার ও ভূমি অফিসের ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ঐ নূতনের কেতন ওড়ে ফজলে রাব্বী দ্বীন

    ঐ নূতনের কেতন ওড়ে ফজলে রাব্বী দ্বীন

    পহেলা বৈশাখ। বাংলা নতুন বছরের প্রথম মাস। ঋতুরাজ বসন্তকে বিদায় জানিয়ে আনন্দের নববর্ষটাকে প্রাণমনে উদযাপিত করার ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ঢাকায় ভাঙ্গা হচ্ছে ২৭১ বছরের পুরনো মসজিদ

    ঢাকায় ভাঙ্গা হচ্ছে ২৭১ বছরের পুরনো মসজিদ

    অনলাইন ডেস্ক : বাইরে দেখে আঁচ করার উপায় নেই ভেতরে ২৭১ বছরের পুরনো মসজিদ আছে। পুরনো ঢাকার আজিমপুরের নিউ পল্টন ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • উনিশ শতকের মুসলিম কবি দাদ আলী মিঞা

    ঊনিশ শতকে বাংলা সাহিত্যে মুসলিম কবি হিসাবে দাদ আলী বিশেষ স্থান অধিকার করেছিলেন। ব্যক্তিগত অনুরাগ ও অনুভূতিকে কবি দাদ আলী অপূর্ব ছন্দে প্রকাশ করে খ্যাতি অর্জন করেন। কবি দাদ আলী মিঞা  ১৮৫২ সালে ২৬ জৈষ্ঠ ১২৫৯ বঙ্গাব্দে বর্তমান কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ছাতিয়ান ইউনিয়নের আটিগ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতার নাম মৃত নাদ আলী মিঞা। ছোটবেলায় কবির ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র সংগ্রামের মহানায়ক বাঘা যতীন

    ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র সংগ্রামের মহানায়ক বাঘা যতীন। বাঘা যতীন একজন বাঙালী বিপ্লবীর নাম। ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র বিপ্লববাদী আন্দোলনের দ্বিতীয় পর্বের সর্বাধিনায়ক। তিনি বাংলার সশস্ত্র বিপ্লববাদী দল যুগান্তর-এবং পরে সকল বিপ্লববাদী দলের প্রধান নির্বাচিত হয়েছিলেন। জার্মানদের সহায়তায় ব্রিটিশ শাসনের অবসান ঘটানোর পরিকল্পনার উদ্যোগতাও তিনি। সেই ব্রিটিশবিরোধী সশস্ত্র ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ড. রাধা বিনোদ পাল যিনি জাপানিদের কাছে দেবতুল্য

    সাংস্কৃতিক রাজধানী খ্যাত কুষ্টিয়া জেলা। এরই একটি অবহেলিত উপজেলা  মিরপুর। যেখানে আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারক ড. রাধাবিনোদ পাল, কবি দাঁদ আলী, নীল বিদ্রোহী প্যারী সুন্দরী ও ইতিহাসবিদ অক্ষয় কুমার মৈত্রের মত অসংখ্য জ্ঞানী ও গুনি ব্যাক্তির জন্মভূমি। যা কালের সাক্ষী হিসেবে এখনও তাঁদের স্মৃতি চিহ্নের ধ্বংসাবশেষ রয়েছে। এছাড়াও  ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনের  অন্যতম নায়ক  ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • মুক্তিযুদ্ধের নীরব সাক্ষী কুষ্টিয়ার করিমপুর

    ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা সংগ্রাম বাঙালী জাতির ইতিহাসে এক স্বর্ণোজ্জ্বল অধ্যায়। মাত্র নয় মাসের যুদ্ধে বর্বর পাক বাহিনীকে পরাজিত করে স্বাধীনতা ছিনিয়ে নেয়ার এমন নজির পৃথিবীর ইতিহাসে অতি বিরল। এ স্বাধীনতা সংগ্রামে বাঙালীকে হারাতে হয়েছে ত্রিশ লাখ তাজা প্রাণ, অসংখ্য মা-বোনের সম্ভ্রব আর অপরিমিত ধন সম্পদ। তবু এক বুক রক্তের বিনিময়ে বাঙালী পেয়েছে রক্তিম স্বাধীনতা। তাই বাংলার ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • তমদ্দুন মজলিসের আলোচনায় বক্তাগণ

    মওলানা ভাসানী ছিলেন স্বাধীনতার প্রথম স্বপ্নদ্রষ্টা

    আফ্রো-এশিয়া-লাতিন আমেরিকার গণমানুষের মজলুম জননেতা মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানীর ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংস্থা তমদ্দুন মজলিস উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তাগণ বলেছেন, ক্ষমতার জন্য নয় নির্যাতিত মানুষের মুক্তিই ছিল মওলানা ভাসানীর জীবনের লক্ষ্য। এদিক দিয়ে এ দেশের রাজনৈতিক ক্ষেত্রে তিনি ছিলেন একমাত্র সম্মানজনক ব্যতিক্রম। বক্তাগণ আরও বলেন, ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

  • ফকীর ও সন্ন্যাসী বিদ্রোহে মজনু শাহ-এর ভূমিকা : একটি পর্যালোচনা

    নূরুল ইসলাম : বৃটিশ শাসন এদেশে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর তাদের শাসন ও শোষণের বিরুদ্ধে ফকির সন্ন্যাসী বিদ্রোহ ছিল প্রথম বিদ্রোহে। ১৭৫৭ খ্রিস্টাব্দের ২৩ জুন পলাশীর প্রান্তরে বাংলার স্বাধীনতার সূর্য অস্তমিত হয়। মুসলমানরা দীর্ঘদিন ধরে বৃটিশ শাসন মেনে নিতে পারে নি। যা শুরু হয় স্বাধীনতা পুনরুদ্ধারের সংগ্রাম। এ সংগ্রামের প্রথম পদক্ষেপ ছিল ফকির-সন্ন্যাসীর বিদ্রোহ। ইস্ট ইন্ডিয়া ... ...

    বিস্তারিত দেখুন

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ