শনিবার ০৮ আগস্ট ২০২০
Online Edition

সরকারি কর্মকর্তাদের অবসরের বয়স ৫৭ থেকে বাড়িয়ে ৫৯ বছর

সংসদ রিপোর্টার : জাতীয় সংসদে সদস্য ফজলুল আজিম বলেছেন, দেশের জনগণ  আজ অসহায় চরমভাবে ও বিপদগ্রস্ত। অন্যদিকে জন-প্রশাসনে অযোগ্য আর অদক্ষ ব্যক্তিরা আনুগত্যের কারণে গুরুত্বপূর্ণ পদে অধিষ্ঠিত রয়েছে। প্রশাসনে এখন মেধার কোন মূল্যায়ণ হয় না। অনেক মেধাবী ব্যক্তিরা আজ ওএসডি হয়ে রয়েছে।  তাদের কোন কাজ নেই। বসে বসে তারা বেতন নিচেছ। তিনি পাবলিক সার্ভেন্টস রিক্রুটমেন্ট এমেনমেন্ট বিল ২০১২ জনমত যাচাইয়ের জন্য আনিত প্রস্তাবের উপর বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন।

 সংসদে তিনি বলেন, সরকারি হিসেবেই দেড় হাজার কর্মকর্তা ওএসডি হয়ে রয়েছে। সবক্ষেত্রেই একটি স্থবিরতা বিরাজ করছে। আমি মনে করি প্রশাসনে অনেক যোগ্য লোক আছে কিন্তু অতিমাত্রার তোষামোদকারীদের ভীড়ে তারা কাজ করতে পারছে না। তাই সরকারী কর্মচারীদের অবসরের মেয়াদ ৫৭ থেকে ৫৯ বছর করলেই হবে না যোগ্য ব্যক্তিদের মূল্যায়ণ করতে হবে। তিনি বলেন বর্তমান সরকার জনগণের নির্বাচিত সরকার। তাই সরকারের কাছে জনগণের প্রত্যাশাও অনেক  বেশি। কিন্তু সেই প্রত্যাশা কতটুকু রক্ষা করতে পারছে সেটিই প্রশ্ন। এর পরে পাবলিক সার্ভেন্টস রিক্রুটমেন্ট এমেনমেন্ট বিল ২০১২ কণ্ঠভোটে পাস হয়। এতে সরকারি কর্মকর্তাদের চাকরি থেকে অবসরের বয়সসীমা ৫৭ থেকে ৫৯ করা হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ