সোমবার ১০ আগস্ট ২০২০
Online Edition

কাফকো চালু হয়নি এক মাসেও

চট্টগ্রাম অফিস : গত ১ মাস ধরে গ্যাসের অভাবে বন্ধ হয়ে রয়েছে বহুজাতিক সার কারখানা  কর্ণফুলী ফার্টিলাইজার কোম্পানি (কাফকো)। ১৫ জানুয়ারি কর্তৃপক্ষ সার কারখানাটি বন্ধ ঘোষণা করে। এতে প্রতিদিন কাফকো ক্ষতি গুণছে প্রায় ১ মিলিয়ন ডলার। কবে নাগাদ কাফকো চালু হবে তাও বলতে পারছে না কাফকো কর্তৃপক্ষ। এ এক মাসে প্রায় কাফকো থেকে ৬ লক্ষ ৩০ হাজার মেট্রিক টন সার উৎপাদন করা যেতো। এর আগে কাফকো থেকে প্রতিদিন ২১শ' মেট্রিক টন সার উৎপাদন হত।

গত সপ্তাহে কাফকোর চীফ পারসোনাল অফিসার শেখ শফিউদ্দিন আহমেদের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্টিবিউশন (কেজিডিসিএল) কর্তৃপক্ষের সাথে আনুষ্ঠানিক বৈঠক করার পর চলতি সপ্তাহের প্রথম দিকে কাফকোতে গ্যাস সরবরাহের আশ্বাস দেয়া হলেও সাঙ্গু ও সেমুতাং গ্যাস ফিল্ড থেকে গ্যাস পাওয়ার কোনো লক্ষণ না পাওয়ায় চলতি সপ্তাহে কাফকো উৎপাদনে যেতে পারছে না।

যোগাযোগ করা হলে কাফকোর সিইও সালাউদ্দিন আহমেদ জানান, কাফকোর উৎপাদন প্রক্রিয়া বন্ধ হওয়ায় আমরা দু'দিক দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছি, প্রথমত প্রতিদিন কাফকোর ক্ষতি গুণতে হচ্ছে প্রায় ১ মিলিয়ন ডলার, আর সরকার হারাচ্ছে বিপুল পরিমাণ রাজস্ব। তিনি আরও জানান, সরকার সিইউএফএলকে যে পরিমাণ গ্যাস দেয় তাতে সিইউএফএল দৈনিক উৎপাদন করতে পারে ১৪শ' মে. টন ইউরিয়া, অন্যদিকে একই পরিমাণ গ্যাস দিয়ে কাফকো উৎপাদন করতে পারে দৈনিক ২১শ' মে. টন ইউরিয়া। কাফকোর এই ঊধ্বর্তন কর্মকর্তা আরও জানান, আমাদেরকে প্রতিদিন ১ মিলিয়ন ডলার ক্ষতি গুণতে হচ্ছে।

এদিকে চলতি সপ্তাহে কাফকোতে গ্যাস সরবরাহের ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারেননি কেজিডিসিএল। সাঙ্গু ও সালদা থেকে গ্যাস সরবরাহের কোনো সুখবর না পাওয়া পর্যন্ত কাফকোতে গ্যাস সরবরাহের কোনো ইঙ্গিত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দিতে পারছে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ