বৃহস্পতিবার ১৬ জুলাই ২০২০
Online Edition

আইনজীবী গ্রেফতার || পুলিশী নির্যাতনে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় হাসপাতালে

স্টাফরিপোর্টার : হাইকোর্টের এজলাসে হট্টগোল ও পুলিশের কাজে বাধা দেয়া মামলায় অভিযুক্ত সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এমইউ আহমেদ পুলিশী নির্যাতনে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে পুলিশ জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এর আগে তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হয়।

জানা গেছে, এমইউ আহমেদকে বুধবার রাত দেড়টায় ১১৬, সেগুনবাগিচার ইস্টার্ন হোম এপার্টমেন্টের ৬ তলা বাসা থেকে গ্রেফতার করা হয়। এমইউ আহমেদের স্ত্রী সেলিনা আহমেদ জানান, রাত আনুমানিক দেড়টার দিকে পুলিশ বাসায় অভিযান চালায়। পুলিশ পরিচয় পাবার পর দরজা খোলার সাথে সাথেই সাদা পোশাক এবং পোশাকধারী ১৫-২০ জন সদস্য হুড়মুড় করে ঘরে প্রবেশ করে। মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক ফজলুর রহমান অভিযানে নেতৃত্ব দেন। এমইউ আহমেদকে গ্রেফতারের সময় ঘরের আসবাবপত্র ও আলমিরা তছনছ করা হয় বলে সেলিনা অভিযোগ করেন।

এদিকে হাসপাতাল থেকে ভোর ৬ টায় টেলিফোনে এমইউ আহমেদের শারীরিক অসুস্থতার কথা জানানো হয়। সেখানে গিয়ে তার পরিবারের সদস্যরা জানতে পারেন, ৬ টার কিছুক্ষণ আগে এমইউ আহমেদকে পুলিশ অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে। সকাল সাড়ে ১০ টা পর্যন্ত এমইউ আহমেদ হাসপাতালের সিসি-১ ওয়ার্ডে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় থাকেন। এরপর বেলা ১২ টায় তাকে ঢামেক হাসপাতাল থেকে হৃদরোগ হাসপাতালে নেয়া হয়।

সংবিধান ছুঁড়ে ফেলা নিয়ে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মুফতি ফজলুল হক আমিনীর বক্তব্যের বিরুদ্ধে করা রিট আবেদনের শুনানিতে গত ২ আগস্ট হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে হট্টগোল হয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদি হয়ে ওই দিনই শাহবাগ থানায় এজলাসে বিশৃক্মখলা এবং সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে ১৪ জন আইনজীবীর নামোল্লেখসহ ৩০-৪০ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। এমইউ আহমেদ ওই মামলার ৯ নম্বর এজাহারভুক্ত আসামী। এ মামলায় বিএনপি দলীয় এমপি সৈয়দা আফিফা আশরাফী পাপিয়াসহ ৩ আইনজীবীকে ৪ আগস্ট গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিকে অপর আইনজীবীদের জামিনের আবেদন বুধবার খারিজ করে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। এর আগে হাইকোর্টের অপর একটি বেঞ্চ হট্টগোলের অভিযোগে ১৩ আইনজীবীকে পেশাগত কাজ থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছে। এমনকি, তাদের আদালতে প্রবেশ করার ওপরও নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে। ওই ১৩ আইনজীবীর আইন পেশার সনদ কেন বাতিল করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে আদালত।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ