রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
Online Edition

ওজন কমার সাথে হাঁটুর ব্যথার সম্পর্ক কী? 

 হাঁটুর ব্যথার সাথে শরীরের ওজনের একটা যোগ আছে। আর্থরাইটিসে আক্রান্ত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে ওজন কমানো জরুরি। এতে গাঁটে কম চাপ পড়ে এবং ব্যথা ও প্রদাহ কমে। যদি কেউ ১০ শতাংশও ওজন কমাতে পারেন, আর্থরাইটিসের লক্ষণকে কমিয়ে দেবে। তাই বিষয়টা ইতিবাচক। আপনি যত বেশি ওজন কমাবেন, ব্যথাও কমবে। ওজন কমালে কি কি লাভ? ১) বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যেসব অস্টিওআর্থরাইটিসের রোগীরা সঠিক ডায়েট ও শরীরচর্চার মাধ্যমে ওজন কমিয়েছেন, তাঁদের হাঁটুর ব্যথাও কমেছে। ২) ওজন কমলে আপনার গাঁটের কার্যকারিতাও উন্নত হয়। চিকিৎসকদের মতে, ধীর বা ব্রিস্ক ওয়াকিং আপনার গাঁটের ব্যথাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে।  ৩) প্রদাহ রিউমাটয়েড আর্থ্রাইটিস, সোরিয়াটিক আর্থরাইটিসের মতো একাধিক অটোইমিউন ডিসঅর্ডার তৈরি করতে পারে। এগুলো সাধারণ ব্যথা-যন্ত্রণার থেকেও কষ্টকর। ৪) ওজন কমালে শরীরে জমে থাকা চর্বি গলতে শুরু করে, এতে প্রদাহ কমে এবং আর্থরাইটিসের ব্যথা-যন্ত্রণাও কমতে থাকে। ৫) গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যে সব ব্যক্তি রিউমাটয়েড আর্থরাইটিসের সমস্যায় ভোগেন, তাঁদের মধ্যে কার্ডিওভাসকুলার রোগ ও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেশি। এই দুই দীর্ঘস্থায়ী রোগের ঝুঁকি এড়াতে গেলে আপনাকে ওজন কমাতে হবে। তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ