বুধবার ২৪ জুলাই ২০২৪
Online Edition

জাহিদুল হাতের কনুই দিয়ে লিখে এইচএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে

মণিরামপুর (যশোর) থেকে: চলতি এইচএসসি পরীক্ষায় মণিরামপুর মহিলা কলেজ কেন্দ্রে হাতের কনুই দিয়ে লিখছেন জাহিদুল ইসলাম নামে এক পরীক্ষার্থী। তার আসন পড়েছে দ্বিতীয় তলায় ২০৭ (খ) নম্বর কক্ষে। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মণিরামপুর উপজেলার আগরহাটি গ্রামের মাহাবুবুর রহমানের ছেলে জাহিদুল ইসলামের হাত আছে, তবে কনুই পর্যন্ত। দুর্ঘটনায় তার দুই হাতের কনুইয়ের নিচের অংশ কেটে ফেলতে হয়। আঙুল না থাকায় স্বাভাবিকভাবে কিছু ধরতে পারে না। এরপরও জাহিদুল থেমে থাকেনি। শারীরিক প্রতিবন্ধতাকে পেছনে ফেলে জীবনযুদ্ধে এগিয়ে চলছে সামনে। কনুইয়ের সাহায্যে লিখে সে এবার মণিরামপুর সরকারি কলেজ থেকে মানবিক বিভাগের পরীক্ষার্থী হিসেবে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছে। পারিবারিক সূত্র জানায়, জাহিদুল তৃতীয় শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় ২০০৮ সালে বাড়ির পাশে একটি তিন তলা ভবনের ছাদে খেলা করার সময় বিদ্যুৎস্পর্শে গুরুতর আহত হয়। পরে ঢাকার একটি হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। কেটে ফেলা হয় তার দুই কনুইয়ের হাতের নিচের অংশ। এ অবস্থায় সে দুই হাতের কনুই ব্যবহার করে তার সব কাজ করতে শিখে নেয়।

লেখালেখি দুঃসাধ্য হলেও লেখাপড়ার প্রয়োজনে দুই হাতের কনুই দিয়ে কলম চেপে লিখতে শেখা আয়ত্ত করে। চিকিৎসা শেষে চার বছর পর আবার তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি হয়। লাউড়ি-রামনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাঠ সম্পন্ন করে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয় ধলিগাতী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে। ২০২২ সালে এসএসসি পরীক্ষা অংশ নিয়ে ৪ দশমিক ৬ নম্বর পেয়ে ভর্তি হয় মণিরামপুর সরকারি কলেজে।

জাহিদুল ইসলাম বলেন, প্রথম দিকে অন্যের সহযোগিতা ছাড়া কোনো কাজ করতে গেলে অনেক কষ্ট হতো। কলম ধরে লেখা আয়ত্ত করতে সক্ষম হয়েছি। সাইকেল চালিয়ে কলেজে যাই। বন্ধুদের সঙ্গে ক্রিকেট খেলায়ও অংশ নিই। এখন নিজের সব কাজ নিজেই করতে পারি। মণিরামপুর সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ জি এম রবিউল ইসলাম ফারুকী বলেন, শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে হার মানিয়ে এগিয়ে চলেছে জাহিদুল। মানবিক বিভাগ থেকে জাহিদুল চলতি এইসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে। পড়ার প্রতি তার ব্যাপক আগ্রহ। সবাই সহযোগিতা করলে সে অনেক দূর যেতে সক্ষম হবে। মণিরামপুর মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও কেন্দ্র সচিব আফরোজা মাহমুদ বলেন, কলেজের দ্বিতীয় তলায় ২০৭ (খ) কক্ষে সহপাঠীদের সঙ্গে বসেই পরীক্ষা দিচ্ছে জাহিদুল ইসলাম।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ