সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪
Online Edition

ভারতের ড্রেসিংরুমে কান্না॥ কোচ বললেন মেনে নেয়া কঠিন

স্পোর্টস ডেস্ক: বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের পর মাঠ থেকে বের হওয়ার সময়ই মোহাম্মদ সিরাজকে কাঁদতে দেখা গেছে। লোকেশ রাহুলের ভেতরটা যেন ভেঙেচুরে গেছে। অধিনায়ক রোহিত শর্মা যতটা সম্ভব স্বাভাবিক থাকার চেষ্টা করলেও বিরাট কোহলিকে দেখা গেছে মাথার ক্যাপ নিচে নামিয়ে নিজের অনুভূতি আড়াল করে মাঠ ছাড়তে।মাঠেই মানসিকভাবে ভেঙে পড়া ভারতীয় দল পরে ড্রেসিংরুমে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়ে, ম্যাচ শেষো কোচ রাহুল দ্রাবিড়ের কথায় উঠে এসেছে। গত কয়েক মাসের পরিশ্রম ও ত্যাগের পর ছেলেদের এমন হার এবং আবেগপ্রবণ হয়ে পড়াটা কোচ হিসেবে চোখে দেখাটা কষ্টকর ছিল বলেই জানালেন দ্রাবিড়। টুর্নামেন্টজুড়ে দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলে অপরাজিত থেকে ফাইনালে নেমেছিল ভারত। কিন্তু প্যাট কামিন্সের অস্ট্রেলিয়ার কাছে ৬ উইকেটে হেরে যান রোহিত শর্মারা। টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়, ম্যাচের পর পুরো ভারতীয় ড্রেসিংরুম কান্নায় ভেঙে পড়ে। ম্যাচ-পরবর্তী আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সাধারণত অধিনায়ক এসে থাকলেও রোহিত শর্মা আসেননি।

কোচ রাহুল দ্রাবিড়কে অধিনায়কের অবস্থা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন, ‘হ্যাঁ, সে হতাশ। ড্রেসিংরুমের বাকি সবার মতোই হতাশ।’ সংবাদ সম্মেলনে আসার আগে ড্রেসিংরুমে কী দেখে এসেছেন জানাতে গিয়ে দ্রাবিড় বলেছেন, ‘ড্রেসিংরুমে বেশ আবেগপ্রবণ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। কোচ হিসেবে ছেলেদের এভাবে দেখাটা আমার জন্য কঠিন। কারণ, এই ছেলেগুলো কী পরিশ্রম করেছে, কী ত্যাগ 

বিশ্বকাপে হৃদয় ভাঙা হতাশার সঙ্গে রাহুল নিজেও ভালোভাবে পরিচিত। ২০০৩ বিশ্বকাপের ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হেরে যাওয়া ভারতীয় দলে ছিলেন তিনি। এরপর ২০০৭ বিশ্বকাপে গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেয়া দলে দ্রাবিড়ই ছিলেন অধিনায়ক। আর কোচ হিসেবে এ বছর এই অস্ট্রেলিয়ার কাছেই বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল হেরেছেন তিনি। খেলাধুলায় এমন দিন আসে বলে সান্ত¡না খুঁজতে চাইলেন রাহুল, ‘এটাই খেলা। এভাবেই ঘটে। ঘটতে পারে। নির্দিষ্ট দিনে সেরা দলটাই জেতে। আমি জানি, কাল সকালে আবার সূর্য উঠবে। আমরা এটা থেকে শিক্ষা নেব। সেটা কাজে লাগাব। আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। থামা যাবে না।’

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ