ঢাকা, বৃহস্পতিবার 13 June 2024, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০, ০৬ জিলহজ্ব ১৪৪৫ হিজরী
Online Edition

সরকার ১৫ বছর ধরে জামায়াতের সাংবিধানিক অধিকারকে খর্ব করে চলেছে :  নূরুল ইসলাম বুলবুল

 

সংগ্রাম অনলাইন : সোমবার রাজধানীর পান্থপথে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীদের অতর্কিত হামলা, রাবার বুলেট নিক্ষেপ এবং সম্পুর্ন অন্যায়ভাবে ১৩ জনকে গ্রেফতারের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আমীর নূরুল ইসলাম বুলবুল বিবৃতি দিয়েছেন।  

মঙ্গলবার দেয়া বিবৃতিতে নূরুল ইসলাম বুলবুল বলেন, জামায়াতে ইসলামী একটি নিয়মতান্ত্রিক ও গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দল। মিটিং-মিছিল ও সমাবেশ করা যে কোনো রাজনৈতিক দলের সাংবিধানিক অধিকার। অথচ সরকার গত ১৫ বছর ধরে জামায়াতে ইসলামীর এই সাংবিধানিক অধিকারকে খর্ব করে চলেছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল ১৮ সেপ্টেম্বর আমীরে জামায়াত ডা. শফিকুর রহমানসহ নেতাকর্মী ও আলেম-ওলামাদের মুক্তি, মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং কেয়ারটেকার সরকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে রাজধানীর পান্থপথে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের শান্তিপুর্ণ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে পুলিশ ও আওয়ামী সন্ত্রাসীরা সম্পুর্ন বিনা উস্কানিতে অতর্কিত হামলা ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে এক ভীতিকর পরিস্থিতির অবতারণা করে এবং সম্পুর্ন অন্যায়ভাবে জামায়াত-শিবির কর্মীসহ ১৩ জন নিরীহ পথচারিকে গ্রেফতার করে। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে গ্রেফতারকৃত সকল নেতাকর্মীকে নিঃশর্ত মুক্তি দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, সরকার নিজেদের অবৈধ ক্ষমতাকে দীর্ঘায়িত করতে এবং রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই বিরোধী মতের নেতাকর্মীদের ওপর অব্যাহতভাবে জুলুম, নির্যাতন চালিয়ে যাচ্ছে। তারা জনগণের বাকস্বাধীনতা ও মৌলিক অধিকার হরণ করেছে। একইসাথে রাষ্ট্রের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জনগণের নিরাপত্তা প্রদানের পরিবর্তে সরকারের পেটুয়া বাহিনীতে পরিনত করেছে। ফলে তারা জনগণের শান্তিপুর্ণ মিছিলে বিনা উস্কানিতে হামলা ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করতেও দ্বিধা করছেনা। আমরা স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, জুলুম-নির্যাতন চালিয়ে অতীতের কোনো স্বৈরাচারী জালেম সরকার যেমন ক্ষমতায় থাকতে পারেনি তেমনি বর্তমান সরকারও ক্ষমতায় টিকে থাকতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, গ্রেফতার, নির্যাতন ও দমন-পীড়ন চালিয়ে জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনকে দমিয়ে রাখা যাবে না। জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত আন্দোলনের মুখে নেতৃবৃন্দের মুক্তি এবং কেয়ারটেকার সরকার হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করতে এই স্বৈরাচারী সরকার বাধ্য হবে ইনশাআল্লাহ। এই ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য আমি ঢাকাবাসীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ