শুক্রবার ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Online Edition

রাস্তার পাশে সবজি চাষে উৎসাহ

শেরপুর সংবাদদাতা : প্রধানমন্ত্রীর আবাদযোগ্য ঘোষণা বাস্তবায়নে কাজ করছে কৃষি বিভাগ ও বিভিন্ন কৃষক সংগঠন। প্রধানমন্ত্রীর কৃষি উন্নয়নমূলক এ  ঘোষণা গ্রমাঞ্চলের কৃষক বাস্তবায়ন করায় শস্যবিন্যাস কর্মসূচির আওতায় রাস্তার দুই পাশে পতিত জমিতে শাকসবজি চাষের ফলে পরিবারে পুষ্টি চাহিদা পূরণের পাশাপাশি বাড়তি আয়ের সুযোগ সৃষ্ট হয়েছে। এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে সবজি ভান্ডারখ্যাত পতিত জায়গায় শাক-সবজি চাষ করে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার পাশাপাশি রাস্তার ভাঙন  রোধ,পারিবারিক পুষ্টি চাহিদা পূরণসহ বাড়তি আয় ও মৌসুমী কর্মসংস্থান সৃষ্টির সুযোগ হয়েছে। নকলার আবহাওয়া শাক-সবজি চাষের উপযোগী, তাছাড়া এখানকার মাটি দো-আঁশ হওয়ায় শাকসবজির ফলন ভালো হয়। তাই উপজেলার প্রায় সব রাস্তার পাশেই সারা বছর কম বেশি বিভিন্ন মৌসুমী শাকসবজি চাষ করা হয়। এতে উপজেলার শত কৃষক রাস্তার দুই পাশের পতিত জমিতে শাকসবজি চাষ করে পরিবারে পুষ্টি চাহিদা পূরণের পাশাপাশি বাড়তি আয়ের পথ খুঁজে পেয়েছেন।

একজনের দেখাদেখি অন্যজন আগ্রহী হওয়ায় উপজেলায় দিন দিন রাস্তার দুই পাশের পতিত জমিতে শাকসবজি চাষের পরিমাণ বাড়ছে। নিজস্ব আবাদি জমি ছাড়া, নামেমাত্র শ্রমে ও অল্প ব্যয়ে রাস্তার পাশের পতিত জমিতে শাকসবজি চাষ করে পরিবারের চাহিদা মিটিয়ে অবশিষ্ট শাকসবজি বিক্রি করে প্রচুর টাকা আয় করছেন অনেকে। কয়েক বছর ধরে উপজেলার গনপদ্দী, নকলা, উরফা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ