সোমবার ৩০ জানুয়ারি ২০২৩
Online Edition

কুমিল্লায় চাঁদার দাবিতে এ প্লাস গ্রুপের কারখানা ভাংচুর লুটপাট 

কুমিল্লা অফিস: কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম পদুয়া সোনাইচা পুদয়া এলাকায় এ প্লাস গ্রুপের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান সাসটেইন অ্যাপারেলস লি: নির্মাণাধীন কারখানায় চাঁদার দবিতে ব্যাপক ভংচুর ও লুটপাট করছে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। এ প্লাস গ্রুপের সিকিউরিটি ইনচার্জ আবদুল জলিল বাদী হয়ে কুমিল্লার আদালতে একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের বিবরণে জানা যায়, গত সোমবার আনুমানিক বিকাল ৩টার দিকে চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সোনাইচা এলাকায় সাসটেইন অ্যাপারেলস লি: এর নির্মাণাধীন কারখানায় স্থানীয় সন্ত্রাসী ইউপি মেম্বার কামাল, মামুন রাজু, টুটুল, শুভ এর নেতৃত্বে ১০/১২ সন্ত্রাসী কারখানায় প্রবেশ করে ১০লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে। এসময় তারা চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে সন্ত্রাসীরা তাদের উপর অতর্কিত হামলা করে। তাদের অফিস রুমে প্রবেশ করে ব্যাপক তান্ডব চালায়। অফিসে থাকা জেনারেটর, গাড়ী, ষ্টেশন সার্ভে মেশিন নিয়ে যায়, ১০ টি মোবাইল, অফিসে ব্যবহৃত জিনিসপত্র ভাংচুর করে লুটপাট করে নিয়ে যায়। কোম্পানির প্রায় ১ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

অভিযোগ পত্রে তিনি আরো উল্লেখ করেন, এই ঘটনার আমি চৌদ্দগ্রাম থানায় একটি অভিযোগ করলে সন্ত্রাসীরা প্রভাবশালি হওয়ায় অভিযোগটি আমলে নেয়নি। পরে মঙ্গলবার কুমিল্লা কোর্টে একটি অভিযোগ করলে কোর্ট বিষয়টি আমলে নিয়ে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশকে তদন্তের নির্দেশ দেয়।

এবিষয় এপ্লাস গ্রুপের ম্যানেজার একরামুল জানান, আমাদের এই প্রোজেক্ট এর মাধ্যমে দক্ষিণ চৌদ্দগ্রামের প্রায় ৩০ হাজার লোকের কর্মসংস্থান হবে, যার ফলে বেকারত্ব কমবে।

এবিষয় স্থানীয় বাসিন্দা জয়নাল আবেদিন সাংবাদিকদের বলেন, এই কারখানার মাধ্যমে আমাদের এলাকার অনেক লোকের কর্মসংস্থান হবে। যারা এই ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে আমরা এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছি। পরবর্তীতে এরকম ঘটনা ঘটলে আমরা এলাকাবাসী তাদের প্রতিরোধ করব।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ