ঢাকা, বুধবার 01 February 2023, ১৮ মাঘ ১৪২৯, ৯ রজব ১৪৪৪ হিজরী
Online Edition

সরকারের বিদায় ঘণ্টা সময় মতোই বাজবে: ডাঃ শফিকুর রহমান

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: নিয়মতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে এই জুলুমবাজ সরকারের বিদায় জানাতে হবে। রাজধানীর নেতাকর্মীরা যথাযথ ভূমিকা রাখতে পারলে সরকারের বিদায় ঘণ্টা সময় মতোই বাজবে বলেছেন বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির ডা: শফিকুর রহমান।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের নবনির্বাচিত আমির নূরুল ইসলাম বুলবুলের শপথ অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। তাকে শপথ পাঠ করান জামায়াতে ইসলামীর আমির ডা: শফিকুর রহমান।

এ সময় তিনি বলেন, বাংলাদেশে আজ বাক স্বাধীনতা কেড়ে নেয়া হয়েছে। এজন্য নানা কালা কানুন তৈরি করা হয়েছে। অর্থনীতি ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে। সরকারি মহল থেকে অর্থ ব্যবস্থাপনা নিয়ে যা বলা হচ্ছে, তার সাথে বাস্তবতার কোনো মিল নেই। তারা দুর্নীতি, লুটপাট করে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। এ দেশকে ব্যর্থ অর্থনীতির রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে।

জামায়াতের আমির বলেন, এভাবে দেশ চলতে পারে না। দেশের এই অবস্থায় জামায়াতে ইসলামীর নেতাকর্মীরা বসে থাকতে পারে না। নিয়মতান্ত্রিক ও শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে এই জুলুমবাজ সরকারের বিদায় জানাতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের এই আন্দোলন হবে যৌক্তিক, নিয়মতান্ত্রিক এবং শান্তিপূর্ণ। কোনো বদ লোক যদি আমাদের এই আন্দোলন বিভ্রান্ত করতে আসে, তাহলে তা শক্ত হাতে মোকাবেলা করতে হবে। রাজধানীর নেতাকর্মীরা যথাযথ ভূমিকা রাখতে পারলে সরকারের বিদায় ঘণ্টা সময় মতোই বাজবে।

ডা: শফিকুর রহমান ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশ বাংলাদেশে ব্যক্তিগতভাবে ইসলাম পালনের পথ সঙ্কুচিত হয়ে আসছে। এখন তাফসির মাহফিলগুলোতেও সঠিকভাবে হক কথা বলা যাবে না। সম্প্রতি মাহফিলগুলো তদারকি করার জন্য প্রশাসনের প্রতি নিদের্শনা জারি করা হয়েছে। এ নিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত পরিবেশ সৃষ্টি হতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন।

আমিরে জামায়াত বলেন, ‘আমরা সব দিক থেকে অধিকারহারা। যেসব যুবকদের বয়স ২৪ থেকে ২৫ বছর, তারা ভোট কী জিনিস তা দেখতে পারেনি। অথচ তারাই ভবিষ্যতে দেশ গড়ার কারিগর হবেন।’

তিনি বলেন, তারা দুর্নীতি, লুটপাট করে হাজার হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার করেছে। কিন্তু এর দায় দায়িত্ব শুধু পাচারকারীরাই নিবে না। এর দায় ভোগ করতে হবে আজকে যারা শিশু তাদের থেকে শুরু করে দেশের জনগনকে। এখন এলসি খোলার ডলার নেই। এর দায় কার? এ দেশকে ব্যর্থ অর্থনীতির রাষ্ট্রে পরিণত করা হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন, আদালতে বিচার নেই। চাঁদাবাজির কারণে মানুষ ব্যবস্থা করতে পারছে না। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছাত্রীদের চরিত্র হননের আয়োজন করা হয়েছে। দেশের শীর্ষস্থানীয় দুটি মহিলা মহাবিদ্যালয়ে এই ধরনের সর্বনাশা কার্যক্রম সরকারি দলের নেতাকর্মীদের ছত্রছায়ায় হয়েছে। এভাবে দেশ চলতে পারে না।

দেশের এই অবস্থায় জামায়াতে ইসলামীর নেতাকর্মীরা বসে থাকতে পারে না উল্লেখ করে তিনি আগামী দিনে প্রতিটি মুহূর্তকে কাজে লাগানোর ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ‘ব্যক্তিগত এজেন্ডা নয়, আমাদের বুঝে শুনে দায়িত্ব পালন করতে হবে। দুনিয়ার কোনো মায়া আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়। চলমান আন্দোলনে আমরা আল্লাহর দেয়া গাইড লাইনের বাইরে যাব না। এই ভেতরে থেকে আল্লাহর ওপর ভরসা করে মাঠে নামবো, তাহলেই বিজয় আসবে সুনিশ্চিত।’

মাওলানা এ টি এম মাসুম বলেন, স্বৈরাচারী হিংস্র শক্তির মোকাবেলায় অধিকার বঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। পাশাপাশি তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে সাজাতে হবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করছি, জুলুমের এই দীর্ঘ পথের অবসান হবে। তাই জনগনের প্রত্যাশা পূরণে, দাবি আদায়ে আমাদের সামনের সারিতে থাকতে হবে।’

নূরুল ইসলাম বুলবুল তৃণমূলে গণভিত্তি অর্জনে ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, মহানগরীর প্রতিটি ঘরে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দিতে হবে। প্রতিটি শ্রেণি-পেশার মানুষকে ইসলামের ছায়াতলে নিয়ে আসতে হবে। সামাজিক নেতৃত্ব গড়ে তোলার পাশাপাশি দক্ষতা ও যোগ্যতা বাড়াতে কার্যকর ভূমিকা পালন করতে হবে।

তিনি উল্লেখ করেন, জগদ্দল পাথরের মতো জাতির ঘাড়ে চেপে বসা সরকারে হাত থেকে জনগণকে মুক্ত করতে কেন্দ্রীয় নিদের্শনার আলোকে তত্বাবধায়ক সরকারের দাবির আন্দোলনে ঢাকা মহানগরী কার্যকর ভূমিকা পালন করবে।

মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, ইসলামী আন্দোলন সবচেয়ে সমৃদ্ধ আন্দোলন। ওহীভিত্তিক আন্দোলন, জাহান্নাম থেকে মুক্তির পথ। এই আন্দোলনে সমৃক্ত সকলকে কুরআনের সাথে সম্পর্ক বাড়াতে হবে। সত্যের সাক্ষ্য হতে হবে। বর্তমান সময়টা এজন্য সবচেয়ে বেশি উপযুক্ত সময় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের মজলিশে শূরার বিশেষ অধিবেশনে মহানগরী আমিরের শপথ অনুষ্ঠিত হয়। জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ও ঢাকা মহানগরী অঞ্চলের পরিচালক মাওলানা এ টি এম মাসুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শপথ অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের আমির মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের নায়েবে আমির মঞ্জুরুল ইসলাম ভুইয়া, কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের নায়েবে আমির আব্দুস সবুর ফকির, কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সেক্রেটারি ড. শফিকুল ইসলাম মাসুদ, কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের সহকারী সেক্রেটারি যথাক্রমে অ্যাডভোকেট ড. হেলাল উদ্দিন, দেলওয়ার হোসাইন, ড. আব্দুল মান্নান, মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য মোকাররম হোসেন ও সৈয়দ জয়নুল আবেদীন প্রমুখ।

উল্লেখ্য, রুকনদের গোপন ভোটে ২০২৩-২০২৪ কার্যকালের জন্য ঢাকা মহানগরী দক্ষিণের আমির নির্বাচিত হয়েছেন নূরুল ইসলাম বুলবুল।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ