শুক্রবার ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Online Edition

বাইডেন পরিবারের ব্যবসা-বাণিজ্য খতিয়ে দেখবে রিপাবলিকান পার্টি 

১৮ নবেম্বর, বিবিসি : প্রতিনিধি পরিষদে নিয়ন্ত্রণ পাওয়ার একদিন পরই রিপাবলিকান পার্টি ঘোষণা দিয়েছে, তারা প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের পরিবারের ব্যবসা-বাণিজ্য খতিয়ে দেখবে। রিপাবলিকান পার্লামেন্ট সদস্যরা স্থানীয় সময় গত বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেনের বিদেশে থাকা ব্যবসা-বাণিজ্য ও এর কার্যক্রমগুলো পর্যালোচনা করবেন তারা। ৫২ বছর বয়সী হান্টারের বিরুদ্ধে নির্বাহী তদন্ত চলছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত তার বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনা হয়নি। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ছেলে হান্টার বাইডেন বর্তমান মার্কিন প্রশাসনের কোনো কিছুর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট নেই। কিন্তু রিপাবলিকানদের সিনিয়র পার্লামেন্ট সদস্যরা বলেছেন, ছেলে হান্টার বাইডেনের ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন কতটুকু জড়িত সেটি খুঁজে বের করবেন তারা। এমনকি জো বাইডেন যখন ভাইস প্রেসিডেন্ট ছিলেন তখনও ছেলেকে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুবিধা পেতে কি রকম সহায়তা করেছেন সেটিও তদন্ত করা হবে। রিপাবলিকান নেতারা দাবি করেন, জো বাইডেন তার পরিবারের ব্যবসার সঙ্গে জড়িত হওয়ার বিষয় নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মানুষের কাছে মিথ্যা বলেছেন। সংবাদ সম্মেলনে রিপাবলিকান নেতা জেমস কোমার বলেন, ‘পরিবারের ব্যবসা বৃদ্ধিতে প্রেসিডেন্ট যেভাবে যুক্ত হয়েছেন তার ক্ষমতার অপব্যবহার।’ তিনি বলেন, ‘আমি পরিস্কার করছি: এটি জো বাইডেনের বিরুদ্ধে একটি তদন্ত, পরবর্তী কংগ্রেসে এটি আমাদের প্রধান লক্ষ্যে থাকবে।’ রিপাবলিকান নেতারা অভিযোগ করেছেন, প্রেসিডেন্ট পুত্র হান্টার বাইডেন কর ফাঁকি ও ডিজিটাল জালিয়াতি করেছেন। তবে এসব অভিযোগের জবাব দিতে হান্টারকে প্রতিনিধি পরিষদে ডাকার কোনো ঘোষণা দেননি তারা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন রিপাবলিকান পার্টির আরেক সিনিয়র নেতা জিম জর্ডান। তিনি পরিষদের বিচারিক কমিটির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পাবেন বলে জানা গেছে। জিম জর্ডান সংবাদ সম্মেলন শেষে টুইটে বলেছেন, ‘বাইডেন পরিবারের ব্যবসায়িক কার্যক্রম যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তার জন্য হুমকি।’ এদিকে রিপাবলিকান পার্টির পার্লামেন্ট সদস্যদের এমন সংবাদ সম্মেলনের প্রতিক্রিয়ায় প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতারা জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্টকে বেকায়দায় ফেলতে এরকম তদন্ত করার চেষ্টা করছে রিপাবলিকানরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ