রবিবার ২৯ জানুয়ারি ২০২৩
Online Edition

মুসলিমরা লক্ষ্মী পূজা করে না তারা কি ধনী না?

স্টাফ রিপোর্টার: এক বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ লোকজন বিহারের শেরমারি বাজারে প্রতিবাদ সমাবেশ করে তার কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে। ভারতের বিহার রাজ্যের এক বিধায়ক হিন্দু দেব-দেবীদের নিয়ে প্রশ্ন তুলে হৈচৈ বাধিয়ে দিয়েছেন। গত বুধবার টুইটারে পোস্ট করা এক ভিডিওতে বিহারের ভাগলপুর জেলার পিরপেইন্তি আসনের বিধায়ক লালন পাসওয়ান হিন্দু বিশ্বাস নিয়ে প্রশ্ন তুলে তার অবস্থানের পক্ষে যুক্তি দেখান। কিন্তু তার মন্তব্যে ক্ষুব্ধ লোকজন ভাগলপুরের শেরমারি বাজারে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে এবং পাসওয়ানের কুশপুত্তলিকা দাহ করেছে। 

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, পাসওয়ান দীপাবলিতে দেবী লক্ষ্মীর উপাসনা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন। শুধু দেবী লক্ষ্মীর পূজা করেই যদি আমরা সম্পদ পেতাম তাহলে মুসলিমদের মধ্যে কোনো শত কোটিপতি ও লক্ষ কোটিপতি থাকতো না। মুসলিমরা দেবী লক্ষ্মীর পূজা করে না, তারা কি ধনী না? মুসলিমরা দেবী সরস্বতীর পূজা করে না। (তাই বলে) মুসলিমদের মধ্যে কি কোনো প-িত নেই? তারা কি আইএএস অথবা আইপিএস হয় না? প্রশ্ন করেন তিনি। বিজেপি এই নেতা বলেন, আত্মা ও পরমাত্মার ধারণা শুধু সাধারণের বিশ্বাস মাত্র।

তিনি বলেন, আপনি যদি বিশ্বাস করেন তাহলে এটি একটি দেবী, কিন্তু যদি না করেন তাহলে এটি শুধু পাথরের একটি মূর্তি মাত্র। দেব-দেবীতে বিশ্বাস করবো কী করবো না এটি আমাদের ওপর নির্ভর করে। যৌক্তিক সিদ্ধান্তে পৌঁছতে হলে আমাদেরকে বৈজ্ঞানিক ভিত্তিতে চিন্তা করতে হবে। আপনি যদি বিশ্বাস করা বন্ধ করে দেন তাহলে আপনার বুদ্ধিবৃত্তিক ক্ষমতা বাড়তে থাকবে। এটি বিশ্বাস করা হয় যে বজরঙ্গবলী একজন শক্তির দেবতা এবং শক্তি দান করেন। মুসলিম বা খ্রিস্টানরা বজরঙ্গবলীর আরাধনা করে না। তারা কি শক্তিধর না? যে দিন আপনি বিশ্বাস করা বন্ধ করবেন, এর সবকিছুই শেষ হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ