মঙ্গলবার ২৯ নবেম্বর ২০২২
Online Edition

যেভাবে মানুষ জেগে উঠেছে এই সরকারের পতন অনিবার্য 

জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি, সারাদেশে পুলিশ ও আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসীদের হামলার প্রতিবাদ এবং বেগম জিয়ার মুক্তির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বিএনপি ঢাকা মহানগরী দক্ষিণ, যাত্রাবাড়ী ও ডেমরা থানার উদ্যোগে সমাবেশ কর্মসূচি পালন করা হয় -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, যে সরকার শেয়ারবাজার লুট করে বিদেশে টাকা পাচার করেছে তাদের আর ক্ষমতায় থাকার অধিকার নাই। তারা ৭৫ সালে একবার গণতন্ত্রকে হত্যা করেছে এখন আবারও গণতন্ত্রকে হত্যায় লিপ্ত রয়েছে, তাদের হাত থেকে দেশকে রক্ষা করতে হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর যাত্রাবাড়ি আইডিয়াল স্কুল এলাকায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। খন্দকার মোশাররফ বলেন, এদেশে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করাই একমাত্র লক্ষ্য। আজ জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে সরকারকে হটাতে হবে। যেভাবে মানুষ জেগে উঠেছে  সরকারের পতন অনিবার্য। 

তিনি বলেন, সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে এখনও বন্দী রেখেছে, ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিদেশে থাকতে বাধ্য করেছে। তার গত ১৪বছরে আমাদের নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে, নির্যাতন করেছে। তিনি আরও বলেন,  আমাদের নেতাকর্মীরা নির্যাতন সহ্য করেও আওয়ামী লীগে যোগদান করেনি।

এতকিছুর পরেও বিএনপিকে দুর্বল করতে পারেননি। আর চেষ্টা করবেন না। জনগণ আপনাদের চিহ্নিত করে রেখেছে। যারা নির্যাতন করেছে তাদের আমরাও চিহ্নিত করে রেখেছি। বেশিদিন সময় নাই। জনগণের সামনে জবাব দিতে হবে। আপনাদের বিচার হবে। পুলিশের উদ্দেশে তিনি বলেন, আপনাদের বেতন হয় দেশের মানুষের ট্যাক্সের টাকায়। আপনারা গণতন্ত্রের কর্মচারি। আপনারা আওয়ামী লীগকে সমর্থন বন্ধ করুন। আমাদের নেতাকর্মীদের ওপর আর হামলা করবেন না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. মঈন খান বলেন, আমরা দেশের মানুষকে গণতন্ত্র উপহার দেওয়ার জন্য দেশ স্বাধীন করেছি। আওয়ামী লীগ তাদের মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি দাবি করে,  তারা যদি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি হয়ে থাকে তাহলে কেন গণতন্ত্রকে হত্যা করে একদলীয় শাসন কায়েম করেছে। আজ সময় এসেছে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে একদলীয় সরকারকে বিদায় করতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করি। জনগণ তাদের ইচ্ছা অনুযায়ী ভোট দিয়ে তাদের সরকার নির্বাচিত করতে চায়। তাই জনগণের চাওয়া পাওয়াকে মূল্যায়ন করে জনগণের পক্ষে আন্দোলন করতে হবে।  দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে হবে। 

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মহামগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আবুল খায়ের ভূঁইয়া, বিএনপি নেতা নবী উল্লাহ নবী প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ