শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২
Online Edition

বিমানবন্দরে নারী ফুটবলারদের লাগেজ থেকে ডলার টাকা চুরি

স্টাফ রিপোর্টার : হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাফ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ বিজয়ী বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের দুই খেলোয়াড়ের লাগেজ থেকে অর্থ চুরির অভিযোগ এসেছে। তবে অভিযোগের সত্যতা মেলেনি বলে জানিয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মো. কামরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়। এদিকে লাগেজ থেকে ডলার চুরির ঘটনা তদন্ত শুরু করছে আর্মড পুলিশ ব্যাটিলিয়ন (এপিবিএন)। থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) লিগ্যাল উইং। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করেছে। এতে ঘটনার সত্যতা প্রতীয়মান হয়নি। বুধবার দুপুর ১টা ৪২ মিনিটে বিজি-৩৭২ ফ্লাইট কাঠমান্ডু থেকে এসে ঢাকায় অবতরণ করে। পরে বাফুফের প্রটোকল প্রতিনিধি ইমরান এবং বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ফুটবল দলের দুই নারী সদস্যের ব্যাগ (হোল্ড ব্যাগেজ) থেকে অর্থ (ডলার এবং টাকা) চুরির অভিযোগ পাওয়া যায়। এই অভিযোগের ভিত্তিতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ সিসিটিভি ফুটেজ পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ করে ঘটনার সত্যতা পায়নি। এতে আরও বলা হয়, সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, বাফুফে প্রটোকল প্রতিনিধি ও দুজন টিম সদস্য অক্ষত এবং তালাবদ্ধ অবস্থায় লাগেজগুলো বুঝে নেন। তারা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লাগেজগুলো বুঝে নিয়ে বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।

জানা গেছে, কৃষ্ণার লাগেজের তালা ভেঙে ৯০০ মার্কিন ডলার ও ৫০ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। অন্যদিকে শামসুন্নাহারের লাগেজ কেটে নিয়েছে ৪০০ মার্কিন ডলার। এর পাশাপাশি কিছু মূল্যবান জিনিসপত্র খোয়া গেছে এই দুই ফুটবলারের। এ বিষয়ে ডিএমপির উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম বলেন, চুরির ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো লিখিত কিংবা মৌখিক অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে আমরা বিমানবন্দর এলাকার একাধিক সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যবেক্ষণ করছি। বিমানবন্দরে দায়িত্বরত আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক পলাশ বলেন, আমরা সংবাদ পাওয়ার পর স্বপ্রণোদিত হয়ে বিষয়টি তদন্ত করছি। গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মো. আকরামুল হোসেন বলেন, এরই মধ্যে ডিবির ইউনিট কাজ শুরু করেছে। র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেন, নেপালে সাফ মিশন শেষ করে বুধবার দুপুরে দেশে ফেরে নারী ফুটবল দল। ফেরার পরপরই জয়ী দলের সদস্যের অর্থ চুরির ঘটনা দুঃখজনক এবং মর্মান্তিক। এ ঘটনার সঙ্গে যে বা যারাই জড়িত তাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনতে এরই মধ্যে র‌্যাব গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছে। এছাড়া বিমানবন্দর ও এর আশপাশের এলাকার একাধিক সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

তদন্ত করছে এপিবিএন : সাফজয়ী দুই ফুটবলারের লাগেজ থেকে ডলার, কাপড়চোপড় ও অন্য আনুষঙ্গিক জিনিসপত্র খোয়া যাওয়ার ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে আর্মড পুলিশ ব্যাটিলিয়ন (এপিবিএন)। বিমানবন্দরে দায়িত্বরত এপিবিএন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জিয়াউল হক বলেন, আমরা সংবাদ পাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি। কৃষ্ণার বাবা বাসুদেব সরকার বলেন, সকালে মেয়ে আমাকে ফোন করেছিল। ওর ভীষণ মন খারাপ। কৃষ্ণা আমাকে বলেছে, ওর লাগেজ থেকে ৪০০ ডলার চুরি করে নিয়েছে। আর শামসুন্নাহারের লাগেজ থেকেও কিছু নেপালি টাকা ও কাপড়চোপড় হারিয়েছে। 

থানায় জিডি: এদিকে সাফজয়ী দুই নারী ফুটবলারের ডলার চুরির ঘটনায় গতকাল দুপুরে মতিঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) লিগ্যাল উইং। শুধু মতিঝিল থানায়ই নয়, বিমানবন্দর থানায়ও সাধারণ ডায়েরি করার প্রক্রিয়া চলছে বলে বাফুফে ভবনে এক ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন সেক্রেটারি আবু নাইম সোহাগ। তিনি জানিয়েছেন, আমরা ইতিমধ্যে মতিঝিল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছি এবং বিমানবন্দর থানায় সাধারণ ডায়েরি করার প্রক্রিয়া চলছে। সেখানে বাফুফে লিগ্যাল ডিপার্টমেন্টের লোকেরা কাজ করছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ