শুক্রবার ০২ ডিসেম্বর ২০২২
Online Edition

১০ লাখ বই নিয়ে ৩০০০ আসনের চোখ ধাঁধানো বিশ্ববিদ্যালয় গ্রন্থাগার

 

 

সংগ্রাম ডেস্ক: তুরস্কের ইস্তাম্বুল মেদেনিয়েত ইউনিভার্সিটির যাত্রার এক যুগও পূর্ণ হয়নি। ২০১০ সালে প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদের শিরোনাম হয়েছে অন্য রকম এক অর্জনের জন্য। আর সেটি হলো বিশ্ববিদ্যালয়টির চোখ ধাঁধানো বিশাল গ্রন্থাগারের যাত্রা।

গতকাল শুক্রবার থেকে ১০ লাখ বই নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে ইস্তাম্বুল মেদেনিয়েত ইউনিভার্সিটির ‘জিরাত ব্যাংক লাইব্রেরি’। তিন হাজার আসনের এই গ্রন্থাগারের অভ্যন্তরীণ সাজসজ্জা যে কাউকে বিমোহিত করবে। এই গ্রন্থাগারে রয়েছে লকার সুবিধা। আছে গাড়ি পার্কিংয়ের ব্যবস্থা। বিশাল ভবনে রয়েছে মসজিদ ও কনফারেন্স হল। একক ও একসঙ্গে কয়েকজনের পড়ার উপযোগী টেবিলের পাশাপাশি ‘গ্রুপ স্টাডি’ ও অধ্যয়নকক্ষের সুবিধাও রাখা হয়েছে। রয়েছে পড়ার ফাঁকে বিশ্রাম নেয়ার এবং মানসিক দক্ষতা বাড়ায় এমন খেলার জায়গাও।

আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধাসংবলিত এই গ্রন্থাগার নির্মাণে তুরস্কের মুদ্রায় ৯ কোটি ৩০ লাখ লিরা ব্যয় হয়েছে, যা বাংলাদেশী মুদ্রায় প্রায় ৪৯ কোটি ২৫ লাখ টাকা। প্রেসিডেন্ট রজব তৈয়ব এরদোগান গ্রন্থাগারটি উদ্বোধন করেন বলে হুররিয়েত ডেইলি নিউজসহ স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়। 

 

তিনি বলেন, ‘আমাদের পূর্বপুরুষেরা বলেছেন, তলোয়ারে জয় করা দেশকে কলম দিয়ে ধরে রাখতে হবে।’

রজব তৈয়ব এরদোগান বলেন, ‘যে জাতি বই ও গ্রন্থাগারের সঙ্গে যোগাযোগ ছিন্ন করে, তাদের টিকে থাকা অসম্ভব। জাতি হিসেবে আমরা যদি সভ্যতার প্রতি কোনো অবদান রাখতে চাই, আমাদের সভ্যতাকে পুনরুজ্জীবিত করার প্রতি যদি ভালোবাসা থাকে, গ্রন্থাগার ছাড়া আমরা এটা করতে পারব না।’ ইস্তাম্বুলের রামি ব্যারাকসকে গ্রন্থাগারে রূপান্তরিত করতে সরকার কাজ করছে জানিয়ে এরদোগান বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন সব বিদ্যালয়ে গ্রন্থাগার স্থাপন নিশ্চিত করেছে তার সরকার।

 একক ও একসঙ্গে কয়েকজনের পড়ার উপযোগী টেবিলের পাশাপাশি ‘গ্রুপ স্টাডি’ ও অধ্যয়নকক্ষের সুবিধাও রাখা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, ‘অল্প সময়ের মধ্যে ৫৭ হাজারের বেশি বিদ্যালয়কে আমরা গ্রন্থাগারের আওতায় নিয়ে এসেছি। বই সংখ্যা তিন গুণ বাড়িয়ে সাত কোটিতে উন্নীত করেছি। এ বছরের শেষ নাগাদ এই সংখ্যা ১০ কোটিতে নিয়ে যেতে পারব বলে আশা করছি।’ ২০২০ সালে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে ইস্তাম্বুল মেদেনিয়েত ইউনিভার্সিটি যাত্রা শুরু করে। ১১টি অনুষদ, ২টি স্কুল, ইনস্টিটিউট অব গ্র্যাজুয়েট স্টাডিজ এবং মোট ১৬টি গবেষণাকেন্দ্র রয়েছে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের।

এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বৈশ্বিক র‌্যাঙ্কিংয়ে জায়গা করে নিয়েছে ইস্তাম্বুল মেদেনিয়েত ইউনিভার্সিটি। টাইমস হায়ার এডুকেশন ইয়াং ইউনিভার্সিটি র‌্যাঙ্কিং-২০২২ অনুযায়ী, ৫০ বছর হয়নি, এমন ৩০০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ইস্তাম্বুল মেদেনিয়েত ইউনিভার্সিটির অবস্থান ২৫১তম। এই তালিকায় থাকা তুরস্কের সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে প্রথম আর তুরস্কের মোট ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে ষষ্ঠ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ