সোমবার ০৮ আগস্ট ২০২২
Online Edition

১২০০ বছরের পুরনো মন্দির খ্রিষ্টান পরিবারের দখল থেকে মুক্ত পাকিস্তানে!

৫ আগস্ট, দি ওয়াল:  ১২০০ বছরের পুরনো একটি হিন্দু মন্দির আবারও চালু হবে পাকিস্তানে। দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর অবশেষে সে মন্দির  উদ্ধার করা গেছে। এতদিন মন্দিরটি অবৈধ দখলদারীদের আওতায় ছিল। পাকিস্তানের আদালতের নির্দেশে সে মন্দিরে আবার পুজো শুরু হতে চলেছে। 

পাকিস্তানের লাহোর শহরে বর্তমানে একটিমাত্র হিন্দু মন্দির রয়েছে। সেটি কৃষ্ণ মন্দির। নিয়মিত পুজো হয় সেখানে। লাহোরের আনারকলি বাজারের কাছেই ছিল একটি বাল্মীকি মন্দিরও। 

লাহোর শহরে সেটি দ্বিতীয় হিন্দু মন্দির। এই বাল্মীকি মন্দিরটি এতদিন একটি খ্রিস্টান পরিবারের দখলে ছিল। গতমাসেই তা দখলমুক্ত করা হয়েছে। পাকিস্তানের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপাসনালয়ের তদারকি করে যে ফেডারেল বডি সেই দ্য এভাকুই ট্রাস্ট প্রপার্টি বোর্ড অবৈধ দখলদারিদের হাত থেকে উদ্ধার করেছে পাকিস্তানের এই সুপ্রাচীন হিন্দু মন্দিরটি।

জানা গেছে, লাহোরের এই বাল্মীকি মন্দিরটি যাদের আওতায় ছিল, তারা মূলত খ্রিস্টান, কিন্তু হিন্দু ধর্মগ্রহণ করেছেন বলে দাবি করে থাকেন। তারা এতদিন এই মন্দিরে কেবল বাল্মীকি হিন্দুদেরই পুজো করতে অনুমতি দিতেন। বাকি হিন্দুদের জন্য বন্ধ ছিল এই মন্দিরের দরজা। গত দুই দশক ধরে এমনটাই চলে আসছিল। মন্দিরটি দখলমুক্ত করার পর সেখানে প্রচুর হিন্দু ধর্মাবলম্বী মানুষজন জড়ো হন। ছিলেন শিখ এবং খ্রিস্টানরাও। হিন্দুরা তাদের ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী মন্দিরে লঙ্গরখানার আয়োজনও করেছিলেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ