বুধবার ৩০ নবেম্বর ২০২২
Online Edition

বাজার দরের সঙ্গে মিল রেখে মজুরি নির্ধারণের দাবি পোশাক শ্রমিকদের

 

স্টাফ রিপোর্টার : অবিলম্বে নতুন মজুরি বোর্ড গঠন ও বাজার দরের সঙ্গে মিল রেখে জীবনযাপন উপযোগী মজুরি নির্ধারণের দাবি জানিয়েছেন পোশাক শ্রমিকরা। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এসব দাবি সামনে রেখে মানববন্ধন করেছে জাতীয় পোশাক শ্রমিক ফেডারেশন।

এ সময় বক্তারা বলেন, বর্তমান সময়ে দ্রব্যমূল্য ঊর্ধ্বগতিতে পোশাক শ্রমিকদের জীবন অতিষ্ঠ। তারা পরিবার পরিজন নিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন। দেশের অর্থনৈতিক গতিশীলতা বিবেচনা ও সর্বোপরি শ্রমিকদের মর্যাদাপূর্ণ জীবনমানের কথা বিবেচনা করে পোশাক শ্রমিকদের অবিলম্বে নতুন মজুরি বোর্ড গঠন করে জীবনযাপন উপযোগী মজুরি নির্ধারণের জোর দাবি জানান। সরকারি কর্মচারীদের বেতন স্কেল, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধি, জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধি, মাথাপিছু জাতীয় আয়, দারিদ্র্যসীমা, পার্শ্ববর্তী দেশসমূহের শ্রমিকদের মজুরি বিষয়ে শ্রমিক সংগঠনগুলোকে ঐক্যবদ্ধ থাকাসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান তারা।

একতা পোশাক শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি কামরুল হাসান বলেন, একজন শ্রমিকের বেতন বাড়ে ৩০০ টাকা। প্রতিমাসে তার খরচও বাড়ে তিনশো টাকা করে। করোনাকালীন সময়ে একজন শ্রমিক জীবনের ঝুঁকি নিয়ে দেশের কথা ভেবে কাজ করলো। কিন্তু তাদের বেতন বাড়ানো হলো না। দেশের অর্থনীতিতে যাদের অবদান আছে তাদের কথা বিবেচনা করা উচিত। মানববন্ধন কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন। তিনি বলেন, ওয়েজ বোর্ড দেওয়া হয়েছিল চার বছর আগে। এরমধ্যে বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস, দৈনন্দিন পণ্যের দাম অনেকবার বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অবস্থাকেও বিশেষ অবস্থা বলে বিবেচনা করা যেতে পারে। তাই আমরা মনে করি গার্মেন্টস শ্রমিকদের জন্য নিম্নতর মজুরি বোর্ড পুনর্গঠন করা হোক। একই সঙ্গে শ্রমিকদের সব অধিকার, নিরাপদ জীবন ও কর্মস্থলের ব্যবস্থা করার আহ্বান জানান তিনি।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ