রবিবার ২৬ জুন ২০২২
Online Edition

ওয়েলস কোচের দায়িত্ব ছাড়লেন গিগস

স্পোর্টস ডেস্ক: পুলিশের হাতে গ্রেফতার হওয়ার পর ২০২০ সালের নবেম্বরে অস্থায়ীভাবে ওয়েলস কোচের দায়িত্ব ছেড়েছিলেন রায়ান গিগস। রবার্ট পেইজের হাতে তুলে দিয়েছিল দেশটির ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। গিগস গত সোমবার নিশ্চিত করেছেন, ওয়েলস জাতীয় দলের কোচের দায়িত্ব একেবারেই ছেড়ে দিচ্ছেন। ৪৮ বছর বয়সী সাবেক এই মিডফিল্ডার ২০২০ সালে বান্ধবী ও অন্য এক নারীকে পিটিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন।

এক বিবৃতিতে গিগস বলেছেন, ‘অনেক ভাবনাচিন্তার পর আমি এ মুহূর্তে ওয়েলস ছেলেদের জাতীয় দলের কোচের পদ ছেড়ে দিচ্ছি। দেশের কোচ হওয়া আমার জন্য অনেক সম্মানের এক বিষয়। কিন্তু প্রধান কোচকে ঘিরে কোনো শঙ্কা ও ধোঁয়াশা ছাড়া ওয়েলস ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন, কোচিং স্টাফ খেলোয়াড়দের বিশ্বকাপের প্রস্তুতি নেয়াটাই সঠিক পদক্ষেপ। তবে মামলায় দেরি হওয়াটা কারও দোষ নয়। আমি চাইনি, এ মামলার কারণে দেশের বিশ্বকাপ প্রস্তুতি ক্ষতিগ্রস্ত হোক।’ রবার্ট পেইজ কোচের দায়িত্ব নেয়ার পর কাতার বিশ্বকাপে খেলার টিকিট কেটেছে ওয়েলস। ১৯৫৮ সালের পর প্রথম বিশ্বকাপে খেলবে গ্যারেথ বেলের দেশ। ২০১৪ সালে অবসর নেওয়ার আগে ইউনাইটেডের হয়ে রেকর্ড ৯৬৩ ম্যাচ খেলেছেন গিগস। ওয়েলসের হয়েও খেলেছেন ৬৪ ম্যাচ। ২০১৮ সালে ওয়েলস কোচের দায়িত্ব নিয়ে দেশকে সর্বশেষ ইউরোর মূলপর্বে তুলেছিলেন গিগস। তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে ওয়েলস ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন (এফএডব্লিউ) বিবৃতিতে বলেছে, ওয়েলসের ছেলেদের জাতীয় দলের কোচ হিসেবে রায়ান গিগসের দেয়া সময়ের জন্য কৃতজ্ঞতা। ওয়েলস ফুটবলের স্বার্থরক্ষায় তিনি যে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, আমরা তার প্রশংসা করছি। ২০১৯ সালের আগস্ট থেকে গিগসের সহকারী হিসেবে কাজ করা পেইজ ২০২০ সালের নবেম্বরে কোচের দায়িত্ব নিয়ে ওয়েলসকে নেশনস লিগের গ্রুপ পর্বে শীর্ষস্থানে তুলেছেন। বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্লে অফে ইউক্রেনকে হারিয়ে কাতারের টিকিট পেয়েছে ওয়েলস। পেইজের অধীন গত ইউরোর শেষ ষোলোয়ও উঠেছিল ওয়েলস।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ