সোমবার ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩
Online Edition

আজ কুসিক নির্বাচন

কুমিল্লা অফিস : কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনে ২৭টি ওয়ার্ডে আজ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। ভোট হবে ইভিএমে। এই সিটি নির্বাচনকে ঘিরে যেমন ভোট উৎসব, তেমন টানটান উত্তেজনাও বিরাজ করছে। আজকের ভোটকে ঘিরে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের আনাগোনা বেড়েছে। এতে সুষ্ঠু ভোট নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন ভোটাররা। কুমিল্লা জেলার আশপাশ এলাকা থেকে আনা হয়েছে ভাড়া করা সন্ত্রাসীদের।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে কুমিল্লা জিলা স্কুল ও শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ দত্ত স্টেডিয়ামে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও পুলিশের কার্যক্রম শুরু হয়, বিতরণ করা হয় ইভিএম মেশিনসহ ভোটের সরঞ্জাম। স্টেডিয়ামে ভোট গ্রহণে নিয়োজিত পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের নানা দিকনির্দেশনা দেন।

কুসিকের তৃতীয় এ নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারীরা হলেন নৌকার প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত, স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু (টেবিল ঘড়ি), নিজাম উদ্দিন কায়সার (ঘোড়া), কামরুল আহসান বাবুল (হরিণ) এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মোঃ রাশেদুল ইসলাম (হাতপাখা)। ভোট গ্রহণের প্রস্তুুতি  নিয়ে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান ও পুলিশ সুপার ফারুক আহমেদ  জানান, সিটি নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তিন হাজার ৬০৮ সদস্য নিয়োজিত থাকবেন। এছাড়া ৭৫টি চেকপোস্ট, ১০৫টি মোবাইল টিম, ১২ প্লাটুন বিজিবি, র‌্যাবের ৩০টি টিম, অর্ধশতাধিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৯ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ভোটের মাঠে থাকছেন। কুসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. শাহেদুন্নবী চৌধুরী বলেন,  ভোটগ্রহণের সকল প্রস্তুতি শেষ হয়েছে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটের সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।  আশা করছি, একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। কেউ সহিংসতা করলে ছাড় দেয়া হবে না। এ নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচ প্রার্থী ছাড়াও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৩৬ জন এবং সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে মোট ১০৮ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত ১০৫টি ভোটকেন্দ্রের ৬৪০টি বুথে ইভিএমে ভোট গ্রহণ হবে। এ বছর নগরীর ২৭টি ওয়ার্ডে ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ২৯ হাজার ৯২০। 

আওয়ামী মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আরফানুল হক রিফাত সকাল ১০টায় মনোহরপুর আদর্শ প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে ভোট প্রদান করবেন। স্বতন্ত্র প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু সকাল ১০টায় নগরীর হোচ্ছামহায়দার বিদ্যালয়ে ভোট প্রদান করবেন। তার আগে তিনি নগরীর টমছম ব্রীজ গোরস্থানে বাবা মায়ের কবর জেয়ারত করবেন। আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার নগরীর ভিক্টোরিয়া কলেজিয়েট স্কুলে সকাল ৯টায় ভোট প্রদান করবেন। 

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার বিকাল ৩টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের দিন সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ চান স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার। তিনি বলেন, নগরীর অনেক ভোটার কুমিল্লার রফতানি প্রক্রিয়াকরণ অঞ্চলে (ইপিজেড) চাকরি করেন। যদি নির্বাচনের দিন এই প্রতিষ্ঠান বন্ধ না করা হয়, তাহলে অনেকে ভোট দিতে পারবেন না। 

সুযোগ পেলেও কর্ম ব্যস্ততায় তারা ভোটের আগ্রহ হারিয়ে ফেলবেন। এছাড়াও সরকারি-আধাসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধের দাবিসহ বেশ কয়েকটি দাবি জানান ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন কায়সার। এছাড়াও নির্বাচনের মাঠে বহিরাগতদের আনাগোনা বৃদ্ধি পেয়েছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন এখনও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করতে পারেনি।

সংবাদ সম্মেলনে এই প্রার্থী আরও বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্যকে নিয়ে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের হতাশার বাক্যে ভোটাররা শঙ্কায় আছেন। তাই ভোটারদের আশ্বস্ত করতে হবে। নির্বাচনের দিন যেন ঢাকা থেকে দু’জন নির্বাচন কমিশনার আসেন। তারা এলে নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে আশা করি। ভোটারদের কেন্দ্রে আনতে মাইকিংয়েও দাবি জানান তিনি। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য অ্যাড.সলিমুল্লাহ খান, অ্যাড.আমানুল্লাহ আমান, আতাউর রহমান ছুটি প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ