রবিবার ২৬ জুন ২০২২
Online Edition

‘আফগানিস্তানে মাধ্যমিকের নারী শিক্ষার্থীদের জন্য সুখবর আসছে’

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: আফগানিস্তানে থমকে আছে মাধ্যমিকের নারী শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়া। এবার তাদের জন্য সুখবর আসছে বলে জানিয়েছেন তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানি। সোমবার (১৬ মে) সংবাদ মাধ্যম সিএনএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, মাধ্যমিকের নারী শিক্ষার্থীদের স্কুলে ফেরা নিয়ে শিগগির সুখবর আসছে।

দেশটি থেকে গত আগস্টে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা সেনা প্রত্যাহার করার পর ক্ষমতার আসনে বসে সশস্ত্র গোষ্ঠী তালেবান। গত মার্চের শেষে তারা মাধ্যমিক স্কুল ও কলেজগামী নারী শিক্ষার্থীদের ক্লাসে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। তালেবানের সর্বোচ্চ নেতা হাইবাতুল্লাহ আখুন্দজাদার এ অপ্রত্যাশিত ঘোষণা অনেক আফগান ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে ক্ষুব্ধ করে।

তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানি বলেছেন, ‘ আমি কিছু তথ্য স্পষ্ট করতে চাই। নারীদের শিক্ষার বিরোধিতা করে এমন কেউ নেই।’ তালেবানের এই নেতা গত মার্চে প্রথমবার জনসম্মুখে এসেছিলেন।

সিরাজুদ্দিন হাক্কানি তার প্রথম টেলিভিশন বক্তব্যে আরও বলেন, মেয়েরা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়া শুরু করেছে। মেয়েদের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ভর্তির অনুমতি দেওয়ার জন্য একটি পদ্ধতিতে কাজ চলছে বলেও জানান তিনি। এই বিষয়টি নিয়ে শিগগির আপনারা সুখবর জানতে পারবেন বলেও জানান এই তালেবান নেতা।

হাক্কানি ইঙ্গিত করে বলেন, আফগান সংস্কৃতি ও ইসলামিক নিয়ম নীতি অনুসারে ড্রেস কোড হওয়া উচিত। বিশেষ করে নারীদের হিজাব পরার বিষয়টিও তুলে ধরেন তিনি।

১৯৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত তালেবানের পূর্বের শাসনকালে নারীদের মুখ ঢেকে বাইরে বের হওয়ার এ নিয়ম চালু ছিল। নারীরা বাইরে কাজ করতে পারতেন না সে সময়, এমনকি মেয়েদের স্কুলে যাওয়া নিষিদ্ধ ছিল। কিন্তু গতবছর আগস্টে তালেবান কাবুল দখলের পর তারা নারী অধিকারকে সম্মান করার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করে। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ