শুক্রবার ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Online Edition

ইউপি নির্বাচন জমে উঠেছে সাভারে ১১টি ইউপির নির্বাচনী মাঠ  

মোঃ শামীম হোসেন (সাভার সংবাদদাতা): সাভার উপজেলার ১১টি  ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারনায় জমে উঠেছে। পঞ্চম ধাপে উপজেলার ১১টি ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৫ জানুয়ারি। এবারের নির্বাচনে সাভার উপজেলার ১২টি ইউনিয়নের মধ্যে ১১ টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। বাকি একটি স্বনির্ভর ধামসোনা ইউনিয়নে পৌরসভা গঠনের লক্ষে নির্বাচন স্থগিত আছে। এ নির্বাচনে উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ, জাতীয় পার্টি, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, জাকের পার্টি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিলে চেয়ারম্যান পদে ভোটের লড়াইয়ে রয়েছেন ৫২ জন এবং সাধারণ সদস্য (পুরুষ) পদে ৩৫৭ জন ও সাধারণ সদস্য (মহিলা) পদে ১১৭ জন। এর মধ্যে তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ফখরুল আলম সমর দ্বিতীয় বারের মতো বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়া সাধারণ সদস্য (পুরুষ) পদে ১০ জন ও সাধারণ সদস্য (মহিলা) পদে ২ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এদিকে ১১ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রার্থীরা হলেন, আমিন বাজার ইউপি: ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত হাত পাখা প্রতীক নিয়ে মাওলানা শফিকুর রহমান, আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীক নিয়ে রাকিব আহম্মেদ, স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহবুব আহমেদ ও রাজু আহমেদ।

 

গণসংযোগ

 গাবতলী (বগুড়া) সংবাদদাতা: আসন্ন ৫ই জানুয়ারি/২২ইং গাবতলীর কাগইল ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ-প্রার্থী আব্দুস সবুর সবুজ ২১শে ডিসেম্বর মঙ্গলবার ইউনিয়নের আমলিচুকাই, নয়াপাড়া, মীরপুর বাজারে তার প্রতীক চশমা মার্কায় ভোট চেয়ে দিনভর ব্যাপক গনসংযোগ করেন। এসময় বিএনপিনেতা আজাদ হোসেন, মিঠু মিয়া, উকিল, বক্কর, রফিকুল, সমাজসেবক সুজা, কামরুল, আনিছার, সাজু, বাছেদ, ফুলমিয়া, লতিব, রিপন, ফারুক, রায়হান, রেজা, বেলাল, মিনহাজুল, জাহেদুল শহিদুল, মিলন, রাশেদ, মোত্তালেবসহ শতাধিক কর্র্মী সমর্থক সাথে ছিলেন। এদিকে গাবতলীর কাগইল ইউপি নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদ-প্রার্থী মশিউর রহমান গতকাল মঙ্গলবার ইউনিয়নের আমলিচুকাই, উত্তরপাড়া, পূর্বপাড়াসহ আশপাশ এলাকায় তার প্রতীক অটো রিকশা মার্কায় ভোট চেয়ে দিনভর ব্যাপক গণসংযোগ করেন। এ সময় বিএনপিনেতা আব্দুল খালেক, শাহজাহান আলী, আফজাল হোসেন, জাবেদালী, তোফাজ্জল হোসেন, মোয়াজ্জেম হোসেন, বাচ্চু মিয়া, যুবদলনেতা লুৎফর রহমান, আবু মুসা বাবুল, নয়ন, নাফিউল, শামিম, ছাত্রদলনেতা মাসুম, রাসেল, রকি, জোবায়ের, শাকিব, জামিলসহ কর্মী সমর্থক সাথে ছিলেন।

 

রামগড় পাতাছড়া ইউপি 

মো. ইউনুছ জনপ্রিয়তার শীর্ষে

 

পার্বত্যাঞ্চল সংবাদদাতা: আসন্ন চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার রামগড় উপজেলার ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে ফুটবল প্রতীকে মেম্বার প্রার্থী হিসেবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে রয়েছেন মো. ইউনুছ (বর্তমান মেম্বার)। সোমবার (২০ডিসেম্বর) সরেজমিনে এলাকার ৬নং ওয়ার্ড ঘুরে এ চিত্র পরিলক্ষিত হয়েছে। সাধারণ মানুষের কাছে বর্তমান মেম্বার হিসেবে তিনি অত্যন্ত আস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে সু-পরিচিত। দীর্ঘদিন ধরে সাধারণ মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন তিনি।  এবারও জনগণ তাকে নির্বাচিত করলে তাদের সেবায় নিজেকে ব্যস্ত রাখতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তিনি। সাধ্য অনুযায়ী সাহায্য করেছেন ও করছেন সাধারণ মানুষকে। তিনি নিজেকে মানুষের সেবায় উৎসর্গ করে দিতে চান।

 

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় 

চেয়ারম্যান নির্বাচিত

 

চাটখিল (নোয়াখালী) সংবাদদাতা: আগামী ০৫ জানুয়ারির ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চাটখিলের ৯নং খিলপাড়া ইউনিয়নে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান আলমগীর হোসেন। গত রোববার মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিনে এই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৭জন প্রার্থীর মধ্যে ৬জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। আলমগীর হোসেন ব্যতিত অন্য ৬জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করায় নির্বাচন কমিশন বেসরকারিভাবে তাকে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত ঘোষণা করেছেন। উপজেলা নির্বাচন অফিসার মোহাম্মদ জাকির হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আলমগীর হোসেন এবারো আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন। এর আগেও তিনি পর-পর দুই মেয়াদে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। আলমগীর চেয়ারম্যান প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলমের ছোট ভাই। তিনি বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ায় যারা মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন তাদের কাছে কৃজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং আগামীতে সকলের সহযোগিতায় আধুনিক খিলপাড়া ইউনিয়ন গড়তে চান।

 

কমলগঞ্জে প্রতীক বরাদ্দের পর 

প্রচারণা শুরু

 

কমলগঞ্জ (মৌলভীবাজার) সংবাদদাতা: আগামী ৫জানুয়ারি ২০২২ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় পঞ্চম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ করা হয়েছে। গত সোমবার (২০ ডিসেম্বর) সকাল থেকে উপজেলা নির্বাচন অফিসে রিটানিং কর্মকর্তাবৃন্দ চেয়ারম্যান, সদস্য ও মহিলা সদস্য প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ করেন। তবে প্রতীক নিতে আসা চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যেও আচরণবিধি লঙ্গন হতে দেখা গেছে। ৯টি ইউনিয়নে চূড়ান্ত ভোটযুদ্ধে চেয়ারম্যান পদে ৩৩ জন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ১০৬ জন ও সাধারণ সদস্য পদে ৩২৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। জানা যায়, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে দলীয় ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং সদস্য ও মহিলা সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে প্রচারণা শুরু করেছেন প্রার্থীরা। প্রতীক নিতে আসা প্রার্থীরা উপজেলা পরিষদের ভেতরেও শত শত লোকের শোডাউন করেন এবং নিজ নিজ প্রতীকে অব্যাহতভাবে স্লোগান দিতে থাকেন। নির্বাচনী আচরণবিধিতে শোডাউন করা নিষেধ থাকলেও তা নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের কোন পদক্ষেপ পরিলক্ষিত হয়নি। ৯টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মহিলা সদস্য ও সাধারণ সদস্য প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দের পর সোমবার বেলা ২টা থেকে উপজেলার সবকয়টি ইউনিয়নে প্রার্থীরা মাইকযোগে প্রচারণা শুরু করেছেন।

 

নৌকার প্রার্থী

হাসান আলী মন্ডলের 

ব্যাপক গণসংযোগ

 

মহাদেবপুর (নওগাঁ) সংবাদদাতা: আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার ১০নং ভীমপুর ইউনিয়নের কয়েকবার নির্বাচিত সাবেক চেয়ারম্যান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবীণ রাজনীতিবীদ হাজী হাসান আলী মন্ডলের ব্যাপক গণসংযোগ। গ্রামগঞ্জ, শহর মহল্লার ভোটারেরা আওয়ামী লীগের এই প্রবীণ রাজনীতিবীদ হাজী হাসান আলী মন্ডলকে ভীমপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হিসাবে পেতে নৌকার পক্ষে তারা কোমড় বেঁধে মাঠে নেবেছেন। নৌকার বিজয় সুনিশ্চিত করতে প্রতিটি ভোটারের দৌড়গোড়ায় নেতাকর্মীরা গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। হাজী হাসান আলী মন্ডল জানান, এলাকার উন্নয়নে, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে নৌকার বিকল্প নেই। তিনি এলাকার উন্নয়নের স্বার্থে ভোটারদেরকে নৌকায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানান। ২৬ ডিসেম্বর  উপজেলার ১০ ইউনিয়নে আসন্ন ইউপি নির্বাচন অনুষ্টিত হবে। এই ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ২১হাজার ২শ’ ৮৪জন। পুরুষ ভোটার ১০হাজার ৬শ’ ৮৮জন এবং মহিলা ভোটার ১০হাজার ৫শ’ ৯৬জন। 

 

রাম প্রসাদের

গণসংযোগ

২৬ ডিসেম্বর নওগাঁর মহাদেবপুরে ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে ১০নং ভীমপুর ইউনিয়নের দুইবার নির্বাচিত জেলার শ্রেষ্ট চেয়ারম্যান রাম প্রসাদ ভদ্রর ব্যাপক গণসংযোগ। এই সৎ যোগ্য প্রার্থীর পক্ষে আবারও ভোটারেরা আনারস মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এলাকার উন্নয়ন, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ নির্মূল, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে এই(করোনাকালীন) স্বর্ণপদক প্রাপ্ত সফল চেয়ারম্যান রামপ্রসাদ ভদ্র বলিষ্ট ভুমিকা পালন করায় বিদেশ সফরের সৌভাগ্য অর্জন করেন এবং এই সফল চেয়াম্যানের কর্মকান্ডে আবারও এলাকার নারী-পুরুষ ভোটারেরা কোমড় বেঁধে আনারসের পক্ষে ভোট প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। ভোটারেরা আশাবাদী আবারও আনারস প্রতীক জয়যুক্ত হবে এবং সফল চেয়ারম্যানের সৎ শাসনের উদয় হবে। এব্যাপারে আনারস প্রতীকের প্রার্থী রাম প্রসাদ ভদ্র জানান, সুষ্ট সুন্দর নির্বাচনের মাধ্যমে তিনি আবারও জয়ি হবেন এবং ভীমপুর ইউনিয়নের উন্নয়নে আবারও উন্নয়ন মূলককর্মকান্ড চলমান রাখবেন এমন প্রত্যাশা। এই ইউনিয়নে মোট ভোটারের সংখ্যা ২১হাজার ২শ’ ৮৪জন। পুরুষ ভোটার ১০হাজার ৬শ’ ৮৮জন এবং মহিলা ভোটার ১০হাজার ৫শ’ ৯৬জন।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ