শুক্রবার ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Online Edition

মণিরামপুরে  এক বাকপ্রতিবন্ধী  নারীর লাশ উদ্ধার 

মণিরামপুর (যশোর) সংবাদদাতা : মণিরামপুরের পল্লীতে পরহেনা খাতুন (৩৬) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার উপজেলার গোপালপুর গ্রামের মাঠে আজিজুর রহমান সরদারের বেগুনক্ষেত থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে। রেহেনা খাতুন গোপালপুর গ্রামের নিছার আলী খাঁ এর মেয়ে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্র জানায়, সোমবার দুপুরে এলাকার লোকজন গোপালপুর মাঠে আজিজুর রহমান সরদারের বেগুনক্ষেতে লাশটি পড়ে থাকতে দেখে। খবর পেয়ে মণিরামপুর থানার উপ-পরিদর্শক সৌমেন বিশ্বাস সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে লাশটি উদ্ধার করেন। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, লাশের মুখের মধ্যে একটি লাল চাদর ঢুকানো এবং তার একটি হাত ও একটি পা ভাঙ্গা রয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসীর ধারণা দুর্বৃত্তরা রেহেনাকে ধর্ষণের পর হত্যা করতে পারে। তবে রোববার রাতের যে কোন সময় দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করেছে এমনটি ধারণা করছেন এলাকাবাসী ও পুলিশ।  এলাকার লোকজন জানায়, বাকপ্রতিবন্ধী রেহেনা খাতুন এলাকায় ভিক্ষা করে জীবিকা নির্বাহ করতো। সৎ মায়ের সংসারে তার বনিবনা না থাকায় এলাকার বিভিন্ন মানুষের বাড়িতে আশ্রয় নিয়ে থাকতো। বাকপ্রতিবন্ধী হওয়ায় বিবাহ হয়নি তার। এ কারণে সে মানুষের দ্বারে দ্বারে ভিক্ষা করে চলতো। দরিদ্র পিতা নিছার আলীও তাকে তেমন দেখভাল করতো না বলে এলাকাবাসী জানিয়েছেন।  থানার উপ-পরিদর্শক সৌমেন বিশ্বাস বলেন, ময়না তদন্তের পর হত্যা না অন্য কিছু তা নিশ্চিত হওয়া যাবে। থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর-ই-আলম সিদ্দিকী লাশ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশটি থানায় পৌঁছালে ময়না তদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। এব্যাপারে গত ২১ ডিসেম্বর মণিরামপুর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে যার কেস নং ১০।

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ