বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১
Online Edition

রংপুর নগরীর দৃষ্টিনন্দন ঘাসফুল : নজর কাড়ছে পথচারীদের

মোহাম্মদ নুরুজ্জামান, রংপুর অফিস: রংপুর মহানগরীর ব্যস্ততম সড়কের মাঝখানে দৃষ্টিনন্দন ঘাসফুলের দৃশ্য এখন নগরবাসী পথচারীদের নজর কাড়ছে। গোলাপের ন্যায় বিকশিত সৌন্দর্য ছড়িয়ে ফুলগুলো ঘ্রাণহীন আবহে রংপুর নগরীর প্রধান সড়কগুলোতে যুক্ত হয়েছে ভিন্ন মাত্রার রঙ্গীন পরিবেশ। এর ফলে সড়ক বাতির পাশাপাশি এই ঘাসফুলগুলো পরিচ্ছন্ন নগরীতে পরিণত করেছে।

রংপুর সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন সড়কে চলার পথে দেখা যায় এমন বাহারী ঘাস ফুলের মেলা। বিশেষ করে নগরীর পার্ক মোড় বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা থেকে লালবাগ, শাপলা চত্বর, জাহাজ কোম্পানী হয়ে মেডিক্যাল মোড় পর্যন্ত যেতে সড়কদ্বীপের মাঝখানে নজর কাড়বে এই ঘাসফুল। নগর বাসীর অভিমত, রাস্তার মাঝখানে ঝাউ পাতার গাছের সাথে ঘাসফুল খুব সুন্দর দেখাচ্ছে। আর এই ফুলগুলো দেখে অনেক শিশু ও স্কুল পড়ুয়া ছেলে-মেয়েরা ফাঁক পেলেই ফুল ছিঁড়ে মাথায় গুঁজে রাখে, এতে তাদের আনন্দের সীমা থাকে না। রংপুর সরকারী কলেজের শিক্ষার্থী মোবাশ্বের হোসেন জানান, সকাল বেলা কলেজ যাওয়ার সময় সড়ক কিছুটা ফাঁকা থাকে। এসময় ফুলগুলো দেখতে খুব ভালো লাগে। এই ফুল বিকেল বেলায় আরও শোভাবর্ধন করে নগরের সড়কগুলোকে। স্থান ভেদে এই ফুলকে বিভিন্ন নামে ডাকা হয়। বাংলাদেশে এই ফুলকে টাইম ফুল বলা হয়। কারণ, এটি বিশেষ সময়ে ফুটে থাকে। বাংলাদেশের এছাড়াও গ্রামে এটিকে ‘ঘাসফুল’ নামেও ডাকা হয়। যদিও ফুলের আসল নাম এটি নয়। আবার বাংলাদেশের শহরে একে ‘পর্তুলিকা’ নামেও ডাকা হয়। মেয়রের এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয় বলে নাগরিকদের অভিমত। নগরের প্রতিটি সড়কে এভাবে ঘাসফুলের পাশাপাশি অন্যান্য পাতাবাহার এবং দৃষ্টিনন্দন উদ্ভিদ লাগানো হলে আরও ভালো দেখাত এই নগরীকে। 

রংপুর সিটি করপোরেশেনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা জানান, সড়কের ডিভাইডার পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতে ও নগরীর সৌন্দর্যকে বিকশিত করতে মালিদের কাজে লাগিয়ে চলতি বছরে সড়কের মাঝখানের পরিত্যক্ত জায়গায় ঘাসফুল লাগানো হয়েছে। যা ইতোমধ্যে শহরে সৌন্দর্য অনেক বাড়িয়েছে। আমরা চেষ্ট করছি আরও নতুন নতুন দৃষ্টিনন্দন কিছু সংযোজন করে এই নগরীকে সুন্দর রাখতে।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ