ঢাকা, রোববার 17 October 2021, ১ কার্তিক ১৪২৮, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

কুমিল্লার প্রকৃত ঘটনা উদ্ঘাটন করা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: কুমিল্লায় সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়ানোর ঘটনার পেছনে কী রয়েছে, তা উদ্ঘাটনের কথা বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

তিনি বুধবার রাতে মিডিয়াকে বলেন, “কুমিল্লার ঘটনা.... আমার মনে হয় কেউ ‘সাবোটেজ’ করে করেছে কি না, এটা দেখার বিষয়।

“আমি ব্যক্তিগতভাবে মনে করি, এভাবে ঘটনা ঘটানোর সাহস ....বিশ্বাস হচ্ছে না। তারপরেও দেখা যাক... সবকিছু এখন কন্ট্রোল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। উদ্ধার করব প্রকৃত ঘটনা কী?”

দেশজুড়ে দুর্গাপূজা চলার মধ্যে কুমিল্লায় একটি মন্দিরে কুরআন অবমাননার ঘটনা ঘটলো, যা এলাকায় তুমুল উত্তেজনার সৃষ্টি করে এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট বর্ষণ করে এবং এতে কয়েকজন আহত হয়।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “প্রশাসনকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দোষীদের আইনের আওতায় আনা হবে।”

কুমিল্লার ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় এদিকে কুমিল্লার ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, চট্টগ্রামের বাঁশখালী, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ, কক্সবাজারের পেকুয়ায় মন্দিরে হামলার খবর পাওয়া গেছে।

বুধবার সকালে কুমিল্লায় একটি মন্দিরকে কেন্দ্র করে সোশাল মিডিয়ায় নানা ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। এক পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে গেলে তারাও তোপের মুখে পড়ে, বাঁধে সংঘর্ষ। দুপুরে বিজিবি মোতায়েন করা হলে পরিস্থিতি শান্ত হয়ে আসে।

কুমিল্লায় নানুয়া দিঘীর পাড়ে পূজামণ্ডপে ঘটনার সূত্রপাত হলেও এরপর সকাল থেকে বিকাল নাগাদ আরও কয়েকটি মন্দিরে হামলা হয় বলে দাবি করেছেন কুমিল্লা মহানগর পূজা উদযাপন কমিটি সাধারণ সম্পাদক শিবু প্রসাদ দত্ত।

ঘটনার সূত্রপাতের বিষয়ে তিনি বলেন, মন্দিরে কে বা কারা একটি কুরআন শরিফ রেখে গিয়েছিল।

“সকালে কে বা কাহারা এটা করছে। কেউ বলে দু’টা ভদ্রমহিলা, দারোয়ানটা নাকি ঘুমায়ে ছিল, ওই সময় ঘটছে ঘটনা। এই রকমই শোনা যাইতেছে আর কী।”

সেটাই ভিডিও করে সকাল ৬টার মধ্যে সোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয় বলে জানান তিনি।

শিবু দত্ত বলেন, “ওসি সাহেবকে কে বা কারা ৯৯৯ নম্বরে ফোন করছে। ফোন করার পর ওসি সাহেব সাথে সাথে আসছে, তখন সাতটা, কি সাড়ে সাতটা বাজে। এসে উনি সাথে সাথে নিয়ে ফেলছে।”

পুরো ঘটনাটি ‘পরিকল্পিত’ দাবি করে এর তদন্তের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

“পরিকল্পিত কেন? কারণ ৭টার সময় অনেক লোক, ওই লোকগুলো আসল কোথা থেকে, আর ওসিকে ৯৯৯ এ কে টেলিফোন করল। ওসি সাহেব অনেক চেষ্টা করছে, তখন কে বা কারা এটা ভিডিও করে ভাইরাল করে দিয়েছে।”

এদিকে দুর্গাপূজার মধ্যে এই ঘটনার পর বিকালে ধর্ম মন্ত্রণালয় এক জরুরি ঘোষণায় বলেছে, “সর্বসাধারণের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, কুমিল্লায় পবিত্র কুরআন অবমাননা সংক্রান্ত খবর আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। খবরটি খতিয়ে দেখার জন্য ইতোমধ্যে আমরা স্থানীয় প্রশাসনকে নির্দেশ প্রদান করেছি।

“ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট করার উদ্দেশ্যে যে কেউ এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকুক, তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।”

কুমিল্লার ঘটনায় যারাই জড়িত, তাদের আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ