রবিবার ১৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে -ড. রেজাউল করিম

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে গতকাল বুধবার বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল বের করে -সংগ্রাম

স্টাফ রিপোর্টার : দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে ও মূল্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের দাবিতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী। রাজধানীর মিরপুরে অনুষ্ঠিত সমাবেশে জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয়  কর্মপরিষদ সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সেক্রেটারি ড. মুহাম্মদ রেজাউল করিম বলেছেন, সরকার দেশ পরিচালনায় সার্বিকভাবে ব্যর্থ হয়েছে। সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বৃদ্ধি না পেলেও লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে বাজার মূল্য। গত এক মাসে প্রায় ১৯.৬৪% বেড়ে গেছে নিত্যপণ্যের দাম। ফলে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তিনি অনতিবিলম্বে মূল্য পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে নিত্যপণ্যের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান।
গতকাল বুধবার সকালে রাজধানীর মিরপুর গোলচত্বরে জামায়াতে ইসলামী ঢাকা মহানগরী উত্তর আয়োজিত বিক্ষোভ পরবর্তী সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি মিরপুর-১ গোলচত্বর থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে টেকনিক্যাল মোড়ে এসে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মজলিসে শূরা সদস্য ও ঢাকা মহানগরী উত্তরের সহকারি সেক্রেটারি লস্কর মোহাম্মদ তসলিম, মাহফুজুর রহমান, নাজিম উদ্দীন মোল্লা ও ডাঃ ফখরুদ্দীন মানিক, মহানগরীর কর্মপরিষদ সদস্য মোস্তাফিজুর রহমান, মজলিসে শূরা সদস্য জিয়াউল হাসান, মু. আতাউর রহমান সরকার, ডা. মঈনুদ্দীন, ঢাকা মহানগরী উত্তরের শিবির সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও পশ্চিম সভাপতি সাব্বির আহমেদ  প্রমুখ।
ড. এম আর করিম বলেন, গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের বিচ্যুতি, সুশাসনের অভাব ও আইনের ভঙ্গুর প্রয়োগের কারণেই বাজার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। সরকারের ভিতরে থাকা এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী, মজুদদার ও বাজার সিন্ডিকেট সার্বিক পরিস্থিতির অবনতি ঘটিয়েছে। এতে মানুষের জীবন-যাপন দুর্বিষহ হয়ে পড়েছে। ২০২০-২১ অর্থবছরে মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে প্রায় ৬.৮৮%। যা জনজীবনকে রীতিমত বিপর্যস্ত করে তুলেছে। অথচ সরকার পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে কার্যকর কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। সরকার জনগণের ভোটে নির্বাচিত নয় বলেই জনগণের জন্য তাদের কোন দায়বদ্ধতা নেই। তাই গণমানুষের সকল সমস্যা সমাধানের জন্য জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তিনি গণপ্রতিনিধিত্বশীল ও দেশপ্রেমিক  সরকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।
সাভারে বিক্ষোভ : বুধবার সাভার পৌরসভা ঢাকা জেলা উত্তর ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে বিক্ষোভ মিছিল করে। সাভার পৌরসভা সেক্রেটারি আবিদ হাসানের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা জেলা উত্তর জামায়াতের সেক্রেটারি মাওলানা শাহাদাত হোসাইন বলেন, দেশ ও জনগণ যখন হুমকির মুখোমুখি হয় তখনি বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী দেশ ও জনগণের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করে তারই অংশ হিসেবে আজকের কর্মসূচী। দেশের সাধারণ মানুষ কঠিন পরিস্থিতিতে, তাদের আয়ের তুলনায় বেঁচে থাকার জন্য যে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্যদ্রব্য ক্রয় ক্ষমতার বাহিরে চলে গেছে। অবিলম্বে সরকারকে বাজার নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসতে হবে। আর যদি না পারেন জনগণ আপনাদের আন্দোলনের মাধ্যমে ক্ষমতা থেকে নামাতে বাধ্য হবে।
সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা জামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য এড শহিদুল ইসলাম। আরো উপস্থিত ছিলেন ছাত্রশিবিরের ঢাকা জেলা উত্তর শাখার সভাপতি হাফেজ রুহুল আমীন সেক্রেটারি সানোয়ার হোসেন, জামায়াত নেতা বশির আহম্মদ, আরশাদ আলী, মুমিনুল ইসলাম, আবদুল কাফি, মোঃ এনায়েতুল্লাহ প্রমুখ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ