রবিবার ২৮ নবেম্বর ২০২১
Online Edition

বিসিবি নির্বাচন থেকে সরে গেলেন শওকত আজিজ রাসেল

স্পোর্টস রিপোর্টার : বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) নির্বাচন থেকে সরে গেলেন শওকত আজিজ রাসেল। গতকাল ছিল মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। এদিন ক্লাব ক্যাটাগরি থেকে শওকত আজিজ রাসেল (আম্বার স্পোর্টিং ক্লাব) নাম প্রত্যাহার করেছেন। তিনি সরে দাঁড়ানোয় প্রার্থী সংখ্যা এখন ৩১। রিটার্নিং অফিসার আলি রেজা সংবাদমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন বিষয়টি। আগামী ৬ অক্টোবর বিসিবি নির্বাচন। ২৩ পদের জন্য ৩২ প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। আলি রেজা বলেন, ‘বিসিবি নির্বাচনে ৩২ জন থেকে একজন তার নাম প্রত্যাহার করেছেন, এখন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩১ জনে। যিনি প্রত্যাহার করেছেন তিনি হলেন ক্যাটাগরি-২ এর। উনার নাম শওকত আজিজ রাসেল।’ বিসিবির পরিচালনা পর্ষদ হবে ২৫ জনের। এর মধ্যে পরিচালক ক্যাটাগরি-১ (জেলা ও বিভাগ) থেকে ১০ জন, পরিচালক ক্যাটাগরি-২ (ক্লাব) থেকে ১২ জন এবং ক্যাটাগরি-৩ (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, সাবেক ক্রিকেটার, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান) থেকে একজনকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন কাউন্সিলররা। এই ২৩ জন ছাড়াও জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ (এনএসসি) থেকে দুজন পরিচালক আসবেন। এখান থেকে ইতোমধ্যে জালাল ইউনুস ও আহমেদ সাজ্জাদুল আলম ববি নির্বাচিত হয়েছেন। তারা ছাড়া আরও সাতজন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে। কারণ তাদের ক্যাটাগরিতে কেউ মনোনয়নপত্র তোলেননি। বিসিবির নির্বাচনে তিন ক্যাটাগরি থেকে মনোনয়নপত্র কিনেছিলেন ৩২ প্রার্থী। একজনের প্রত্যাহারের পর ক্যাটাগরি-১-এ (জেলা ও বিভাগ) ১৩ প্রার্থী রয়েছেন। এই ১৩ জন থেকে ১০ জন নির্বাচিত হবেন। ক্যাটাগরি-২-এ (ক্লাব) ১৬ প্রার্থী। এখান থেকে ১২ জন নির্বাচিত হবেন। ক্যাটাগরি-৩ (পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়, সাবেক ক্রিকেটার, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান) থেকে নির্বাচিত হবেন একজন। এখানে প্রার্থী সংখ্যা দুইজন। রিটার্নি অফিসার আলি রেজা বলেছেন, ‘একজন প্রত্যাহার করার পর এখন যেটা দাঁড়াচ্ছে, সেটা হচ্ছে ক্যাটাগরি-১ থেকে ১৩ জন, ক্যাটাগরি-২ থেকে ১৬ ও ক্যাটাগরি-৩ থেকে ২ জন। মোট ৩১ জন কাউন্সিলর রয়েছেন। এখন আর প্রত্যাহারের সুযোগ নেই, বেলা ১২টায় শেষ হয়ে গেছে, এখন আমরা প্রার্থীদের তালিকা টানিয়ে দেব।’ জেলা ক্যাটাগরিতে নির্বাচন করে আসতে হবে তিন পরিচালককে। ঢাকা বিভাগের দুটি পদের জন্য লড়াই হবে চারজনের। তারা হলেনÑ তানভীর আহমেদ টিটু, নাঈমুর রহমান দুর্জয়, সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম টিটু, খালিদ হোসেন। রাজশাহী বিভাগে একটি পদের জন্য লড়বেন জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট। প্রথমবার তিনি পরিচালক পদে নির্বাচন করছেন। তার প্রতিদ্বন্দী সাইফুল আলম স্বপন চৌধুরী, যিনি গত মেয়াদে পরিচালক ছিলেন। সবকিছু ছাপিয়ে নির্বাচনের সবচেয়ে আলোচিত হচ্ছে ক্লাব ক্যাটাগরি। এখানে ১২ পদের জন্য লড়বেন ১৬ কাউন্সিলর। নাজমুল হাসান পাপন (আবাহনী লিমিটেড), গাজী গোলাম মর্তুজা (গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স), নজিব আহমেদ (শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব), মাহবুব উল আনাম (মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব), মাসুদুজ্জামান (মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব), ওবায়েদ রশিদ নিজাম (শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব), সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া (ওল্ড ডিওএইচএস স্পোর্টস ক্লাব), সালাহ উদ্দিন চৌধুরী (কাকরাইল বয়েজ ক্লাব), ইসমাইল হায়দার মল্লিক (শেখ জামাল ক্রিকেটার্স), এনায়েত হোসেন (আজাদ স্পোর্টিং ক্লাব), ফাহিম সিনহা (সূর্য তরুণ ক্লাব), ইফতেখার রহমান (ফেয়ার ফাইটার্স স্পোর্টিং ক্লাব), মনজুর কাদের (ঢাকা এসেটস), মোহাম্মদ আব্দুর রহমান (মিরপুর বয়েজ ক্রিকেট ক্লাব), রফিকুল ইসলাম (গাজী টায়ার্স ক্রিকেট একাডেমি) ও মনজুর আলম (আসিফ শিফা ক্রিকেট একাডেমি)- সবাই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এখান থেকে ১২ জন পরিচালক নির্বাচিত হবে। তিন নম্বর ক্যাটাগরিতেও নির্বাচন হবে। বড় চমক দেখিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন বিসিবির গেম ডেভেলপমেন্ট বিভাগের সাবেক ন্যাশনাল ম্যানেজার ও বিকেএসপির ক্রিকেট উপদেষ্টা নাজমুল আবেদীন ফাহিম। বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে নির্বাচন করবেন তিনি। তার প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। ২৩ পরিচালক নির্বাচনের জন্য ১৭১ কাউন্সিলর তিন ক্যাটাগরিতে নির্বাচনে ভোট দেবেন। প্রথম ক্যাটাগরি আঞ্চলিক জেলা ও ক্রীড়া সংস্থার। কাউন্সিলর আছেন ৭১ জন। দ্বিতীয় ক্যাটাগরি ঢাকা মেট্রোপলিটন ক্লাব প্রতিনিধি। তাদের কাউন্সিলর আছেন ৫৭ জন। তৃতীয় ক্যাটাগরি থেকে কাউন্সিলর রয়েছেন ৪৩ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ