রবিবার ২৮ নবেম্বর ২০২১
Online Edition

শিগগিরই রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আমরা আশা করছি আন্তর্জাতিকভাবে খুব দ্রুত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে কক্সবাজারের মাতারবাড়ী তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র ও গভীর সমুদ্র বন্দর প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি নিয়ে মতবিনিময় সভা শেষে মন্ত্রী এ কথা বলেন।  
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, বর্তমান সরকারের বড় বড় মেঘা প্রকল্পগুলোর মধ্যে কক্সবাজার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর প্রকল্প, রেললাইন প্রকল্পসহ বেশকিছু মেঘা প্রকল্প চলমান রয়েছে। এসব মেঘা প্রকল্পগুলোর নিরাপত্তা আমাদের সার্বিক দায়িত্ব। ভবিষ্যতে আরো নিরাপত্তা জোরদার করা হবে। এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় বিজিবির একটি বিশেষ হেলিকপ্টার যোগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল মাতারবাড়ী তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে অবতরণ করেন। এসময় মহেশখালী-কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ ও পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বাগত জানান। সেখানে তিনি বিকাল সোয়া ৪টা পর্যন্ত বিভিন্ন উন্নয়ন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। চলমান প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি নিয়ে মতবিনিময় সভায় সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা তাকে বিভিন্ন প্রকল্প সম্পর্কে ধারণা দেন। পরে বিকাল সোয়া ৪টায় হেলিকপ্টার করে মাতারবাড়ি ত্যাগ করেন মন্ত্রী।
পরিদর্শনকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন- সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, মন্ত্রী পরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দিন, পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. বেনজির আহমেদ, বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. শাফিনুল ইসলাম, বিদ্যুৎ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো: সেলিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল এম শাহজাহান, কোস্টগার্ডের উপপরিচালক কমোডর এনামুল হক, পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি (স্পেশাল ব্র্যাঞ্চ) মো. মনিরুল ইসলাম, চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মো. আনোয়ার হোসেন
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বিকেল সাড়ে ৪টায় হেলিকপ্টার যোগে কক্সবাজার শহরে পৌঁছেন এবং কক্সবাজারে রাত্রীযাপন করবেন। ২৯ সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় হেলিকপ্টার যোগে কক্সবাজার থেকে নোয়াখালীর ভাসানচরে যাবেন মন্ত্রী। সেখানে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত মায়ানমারের নাগরিকদের সমন্বয়, ব্যবস্থাপনা ও আইনশৃংখলা সম্পর্কিত জাতীয় কমিটির সভায় অংশ নেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ