রবিবার ২৩ জানুয়ারি ২০২২
Online Edition

বিসিবি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র জমা দিলেন ৩২ জনের সবাই

স্পোর্টস রিপোর্টার: বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচন আগামী ৬ অক্টোবর। এর মধ্যে শেষ হয়েছে মনোনয়নপত্র ক্রয় ও জমা দেয়ার প্রক্রিয়া। গতকাল ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন। তিন ক্যাটাগরিতে যে কজন মনোনয়ন তুলেছিলেন, তারা সবাই জমা দিয়েছেন। গতকাল শেষ দিনে মধ্য দুপুরের পর মনোনয়নপত্র জমা দিতে আসেন পদপ্রার্থীরা। দুই দিন আগে যারা মনোনয়নপত্র নিয়েছেন তারা প্রত্যেকেই জমা দিয়েছেন। গতকাল বিকেল ৪টা ছিল বিসিবি পরিচালক পর্ষদ নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দেয়ার শেষ সময়। তিন ক্যাটাগরিতে বিসিবির ২৩ পরিচালক পদের বিপরীতে মোট মনোনয়নপত্র নিয়েছিলেন ৩২ জন। বিসিবির পরিচালনা পরিষদ সংখ্যা ২৫টি। জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ থেকে দুইজন মনোনীত হওয়ায় নির্বাচন হচ্ছে ২৩টি পদে। আঞ্চলিক ও জেলা ক্রিকেট সংস্থার প্রতিনিধি (ক্যাটাগরি-১) থেকে ১০ পরিচালক পদের বিপরীতে ১৩ জন মনোনয়নপত্র নেন। এর মধ্যে চট্টগ্রাম, সিলেট, খুলনা, বরিশাল ও রংপুর বিভাগে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হবেন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা সাত সংগঠকেরা। তবে ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ঢাকা বিভাগের দুইটি পদের জন্য চারটি মনোনয়ন কেনা হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার তানভীর আহমেদ টিটু, মানিকগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার নাঈমুর রহমান দুর্জয়, কিশোরগঞ্জ জেলা ক্রীড়া সংস্থার সৈয়দ আশফাকুল ইসলাম ও মাদারীপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার খালিদ হোসেন মনোনয়নপত্র কিনেছেন। তাদের মধ্যে দুইজন ভোটের মাধ্যমে পরিচালক নির্বাচিত হবেন। এছাড়া রাজশাহী বিভাগের একটি পদের জন্য লড়ছেন দুইজন। খালেদ মাসুদ পাইলট রাজশাহী বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার কাউন্সিলরশিপ পেয়েছেন। এছাড়া বর্তমান পরিচালক সাইফল আলম স্বপন চৌধুরী কাউন্সিলরশিপ পেয়েছেন পাবনা জেলা ক্রীড়া সংস্থা থেকে। তবে মূল লড়াইটা হবে ক্লাব ক্যাটাগরিতে। যেখানে ১২ পদের জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন ১৭ কাউন্সিলর। মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ও চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ হবে ৩০ সেপ্টেম্বর। নির্বাচন করার জন্য মোট ৩২ জন মনোনয়ন তুলেছিলেন। তারা সবাই গতকাল ২৭ সেপ্টেম্বর নির্ধারিত দিন ও সময়ে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন। তার মধ্যে আবার ৭ জন বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হওয়ার পথে। কারণ তাদের আর কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী মনোনয়ন তোলেননি। চট্টগ্রাম (আ জ ম নাসির, আকরাম খান) ও খুলনা বিভাগ (কাজী ইনাম, শেখ সোহেল) থেকে দুজন করে ৪ জন, সিলেট (শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল), রংপুর (অ্যাডভোকোট আনোয়ারুল ইসলাম) ও বরিশালের (আলমগীর খান আলো) তিনজনসহ মোট ৭ জনের কোনোই প্রতিপক্ষ নেই। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ