ঢাকা, শুক্রবার 29 October 2021, ১৩ কার্তিক ১৪২৮, ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

রিজেন্টের সাহেদের সঙ্গে আসামি হচ্ছেন স্বাস্থ্যের সাবেক ডিজি আজাদও

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদকে গতবছর দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

প্রতারণা ও জালিয়াতির অভিযোগে গতবছর জুলাই মাসে বন্ধ করে দেওয়া হয় রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর ও উত্তরা শাখা।

প্রতারণা ও জালিয়াতির অভিযোগে গতবছর জুলাই মাসে বন্ধ করে দেওয়া হয় রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর ও উত্তরা শাখা।

লাইসেন্সের মেয়াদ না থাকার পরও করোনাভাইরাসের নমুনা সংগ্রহ ও চিকিৎসার জন্য চুক্তি করে ‘সরকারি অর্থ আত্মসাতের’ মামলায় রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাহেদের সঙ্গে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সাবেক মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদও আসামি হচ্ছে।

এই দুজনের পাশাপাশি মোট ছয় জনকে আসামি করে সোমবার এ মামলার অভিযোগপত্র অনুমোদন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা মুহাম্মদ আরিফ সাদেক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “শিগগিরই এই অভিযোগপত্র আদালতে দাখিল করা হবে।”

অভিযোগপত্রের অপর আসামিরা হলেন- স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সাবেক পরিচালক আমিনুল হাসান, উপ-পরিচালক (হাসপাতাল-১) মো. ইউনুস আলী, সহকারী পরিচালক (হাসপাতাল-১) মো. শফিউর রহমান এবং গবেষণা কর্মকর্তা মো. দিদারুল ইসলাম।

করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা ও চিকিৎসায় খরচ বাবদ মোট তিন কোটি ৩৪ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গত বছর ২৩ সেপ্টম্বর এ মামলা দায়ের করেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী। সেখানে আবুল কালাম আজাদ ছাড়া বাকি পাঁচজনকে আসামি করা হয়।

পরে ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারীকেই তদন্তের দায়িত্ব দেয় দুদক। দীর্ঘ এক বছর পর এ মামলার তদন্ত শেষে অভিযোগপত্র অনুমোদন চেয়ে কমিশনে প্রতিবেদন দেন তদন্ত কর্মকর্তা। সোমবার তা অনুমোদন করল কমিশন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ