বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

রাবিতে সশরীরে পরীক্ষা তবু হল খুলছে না ॥ মেসে সিট খুঁজে হয়রান শিক্ষার্থীরা

রাবি রিপোর্টার: গত তিন দিন থেকে মেস খুঁজছি, কোথাও পাচ্ছি না। আর পেলেও কোনো মেসে সিট খালি নেই কিংবা পূর্বের তুলনায় দ্বিগুণ ভাড়াসহ মেস মালিকরা ৩ মাসের অগ্রিম ভাড়া চাচ্ছেন। এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের (রাবি) অর্থনীতি বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী হাসান হাফিজ।

হাফিজের মতো রাবি’র শত শত শিক্ষার্থী এই দুর্ভোগের শিকার। সমাজকর্ম বিভাগের শিক্ষার্থী অনিবিত মারিয়া বলেন, ‘মেসে সিট ফাঁকা নাই, আজ আমরা পুরা বিনোদপুর মির্জাপুর এলাকায় মেস খুঁজেছি, কোথাও একটা সিট নাই। খুবই খারাপ অবস্থা। এখনো অনেক শিক্ষার্থী বাড়িতে আছে, তারা সবাই যদি আসে তাহলে তো তাবু করে ক্যাম্পাসে থাকা ছাড়া কোনো উপায় নাই। তাছাড়া সবাই কমবেশি ভ্যাকসিন এর আওতায় এসেছে, সুতরাং প্রশাসনের উচিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে হল খুলে দিয়ে শিক্ষার্থীদের আবাসন সংকট দূর করা।’ 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের চূড়ান্ত ও সেমিস্টার ফাইনাল পরীক্ষা শুরু করতে যাচ্ছে প্রায় ২০টি বিভাগ। এর মধ্যে আছে আরবী, ইসলামিক স্টাডিজ, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, বাংলা ও দর্শন এই বিভাগগুলোর পরীক্ষা গ্রহণের চূড়ান্ত রুটিন প্রকাশ করেছে। এরইমধ্যে ফর্ম ফিলআপ সম্পন্ন করছে বিভাগগুলো। ২০১৯ সালের আটকে থাকা বিভিন্ন বিভাগের পরীক্ষাও চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে শুরু হয়েছে। এ কারণে বিভাগগুলোর শিক্ষার্থীরা রাজশাহীতে চলে এসেছেন। তবে আবাসিক হল না খোলায় বিপাকে পড়েছেন তারা। এছাড়া কবে নাগাদ হল খুলতে পারে এ নিয়েও নির্দিষ্টভাবে জানায়নি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। যদিও বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল প্রাধ্যক্ষদের সাথে কথা বলেছেন ভিসি অধ্যাপক ড. গোলাম সাব্বির সাত্তার। কবে নাগাদ হল খুলতে পারে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল প্রাধ্যক্ষ পরিষদের আহবায়ক অধ্যাপক ড. আরিফুর রহমান বলেন, ৩০ সেপ্টেম্বর একাডেমিক কাউন্সিলের সভায় সশরীরে ক্লাস শুরুর বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে। সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর ভিসি’র পরামর্শক্রমে হল প্রাধ্যক্ষ পরিষদের সভা আহবান করা হবে। সেখানে হল খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, ‘ক্লাস শুরুর আগেই হল খুলে দেয়া হবে। সেক্ষেত্রে কতদিন আগে খুলে দেয়া হবে সে বিষয়ে আমরা কথা বলবো।’ 

 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ