বুধবার ২০ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

বসুন্ধরা আবাসিকে বিদেশী পিস্তলসহ ‘জামাই রাসেল’ গ্রেফতার

স্টাফ রিপোর্টার : রাজধানীর ভাটারার বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে বিদেশী পিস্তলসহ একজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা (ডিবি) ওয়ারী বিভাগ। গ্রেফতার ব্যক্তির নাম মো. ফয়েজ আহমেদ ওরফে ফয়জুল ইসলাম ওরফে ফয়সাল ইসলাম ওরফে রাসেল ওরফে ভাগ্নে রাসেল ওরফে ভাইয়া রাসেল ওরফে জামাই রাসেল। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার ডিবি ওয়ারী বিভাগের অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ টিমের সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. শামসুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বলেন, সোমবার দিবাগত রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় অভিযান চালিয়ে মো. ফয়েজ আহমেদকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার সঙ্গে আরও কয়েকজন ছিল। তারা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যান। ফয়েজ আহমেদকে তল্লাশি করে স্পেনের তৈরি একটি পিস্তল এবং ম্যাগজিনে লোডেড অবস্থায় দুই রাউন্ড কার্তুজ জব্দ করা হয়। সিনিয়র সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. শামসুল ইসলাম আরও বলেন, ‘আসামিকে আদালতে হাজির করে রিমান্ড আবেদন করা হয়েছে। রিমান্ড মঞ্জুর হলে জিজ্ঞাসাবাদে তার কাছ থেকে আরও তথ্য পাওয়া যাবে।  
মতিঝিলে ছিনতাইকালে দেশীয় অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২ : রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় ছিনতাইকালে দেশীয় অস্ত্রসহ হাতেনাতে দুইজনকে গ্রেফতার করেছে মতিঝিল থানা পুলিশ। সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাররা হলেন- আ. রব ও মো. সাইফুল। গ্রেফতারের সময় তাদের কাছ থেকে দুটি চাকু ও একটি মোবাইল উদ্ধার করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ইয়াসির আরাফাত খান এ তথ্য জানান।
তিনি বলেন, সোমবার ভুক্তভোগী আল আমিন চাঁদপুর থেকে বিদেশ যাওয়ার বিষয়ে আলোচনা করার জন্য মতিঝিলের ইয়াম্বো ট্রাভেলসে আসেন। কাজ শেষে রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাসায় ফেরার পথে তিনি আরামবাগ পৌঁছলে গ্রেফতার রব ও সাইফুলসহ তার সহযোগীরা ভুক্তভোগীর পথরোধ করেন। এ সময় গ্রেফতাররা চাকুর ভয়-ভীতি দেখিয়ে ভুক্তভোগীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোন ও পাঁচ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। আল আমিনের চিৎকারে আশপাশের লোকজনের সহায়তায় টহল পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার দুইজনসহ তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে মতিঝিল থানায় মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত অন্য অভিযুক্তদের গ্রেফতার অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ