বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তা রক্ষায়  ব্যর্থ মার্কিন সেনারা -----তালেবান

২৭ আগস্ট, রয়টার্স : আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ভয়াবহ আত্মঘাতী জোড়া বোমা হামলার নিন্দা জানিয়েছে সদ্য ক্ষমতা দখল করা তালেবান। গত বৃহস্পতিবার শেষ বেলায় চালানো এ হামলায় অন্তত ১৩ মার্কিন সেনাসহ শতাধিক প্রাণহানি হয়েছে। দেশটি নিয়ন্ত্রণকারী তালেবানের মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, সারাদেশের নিরাপত্তা রক্ষা করার দায়িত্ব তাদের হাতে থাকলেও কাবুল বিমানবন্দর নিয়ন্ত্রণ করছে মার্কিন সেনারা। কাজেই এই হামলা প্রতিহত করতে না পারার ব্যর্থতা মার্কিন সেনাদের। তিনি বলেন, আফগানিস্তানের জনগণের জানমালের নিরাপত্তা রক্ষায় তালেবান যথেষ্ট তৎপর এবং এ ধরনের হামলা প্রতিহত করার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছে। তালেবান আন্তর্জাতিক সমাজের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ এবং তারা আফগানিস্তানকে সন্ত্রাসবাদের লালনভূমিতে পরিণত হতে দেবে না।

এদিকে কাবুলে ভয়াবহ বোমা হামলার নিন্দা জানিয়েছে পাকিস্তান। দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বৃহস্পতিবার রাতে এক বিৃবতিতে ওই হামলার তীব্র নিন্দা জানায়।  বিবৃতিতে আরও বলা হয়, যেকোনও উপায়ে সন্ত্রাসবাদের আত্মপ্রকাশের নিন্দা জানায় পাকিস্তান। বিবৃতিতে নিহতদের পরিবারবর্গকে শোক জানানোর পাশাপাশি আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করা হয়।

কাবুল বিমানবন্দরের বাইরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহতদের মধ্যে তালেবানের অন্তত ২৮ জন রয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই বাহিনীর একজন মুখপাত্র। গতকাল শুক্রবার তিনি বলেছেন, “আমেরিকানদের চেয়ে বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে আমাদের।”  তিনি বলেন, পূর্ব নির্ধারিত ৩১ অগাস্ট তারিখের মধ্যেই আফগানিস্তান থেকে সব বিদেশি বাহিনীকে সরিয়ে নিতে হবে, সেই সিদ্ধান্ত বদলানোর কোনো ‘কারণ ঘটেনি’।  তালেবান কাবুলের দখল নেওয়ার পর থেকেই পশ্চিমা দেশগুলো তাদের সৈন্যদের পাশাপাশি নিজেদের বেসামরিক নাগরিকদের কাবুল বিমানবন্দর দিয়ে আফগানিস্তান থেকে সরিয়ে নিচ্ছে।  হাজার হাজার আফগানও দেশ ছাড়ার চেষ্টায় মরিয়া হয়ে বিমানবন্দরের ভেতরে ও বাইরে অপেক্ষা করছেন প্রতিদিন। ফলে সেখানে এক নজিরবিহীন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।  এর মধ্যেই  বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিমানবন্দরের বাইরে পরপর দুটি বড় বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, যার দায় স্বীকার করেছে আইএস। আফগানিস্তানের একজন স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বরাত দিয়ে শুক্রবার সকালে বিবিসি জানিয়েছে, ওই হামলায় অন্তত ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে, আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১৫০ জন। নিহতদের মধ্যে অন্তত ১৩ জন মার্কিন সেনা রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পেন্টাগন। তালেবান কাবুলের নিয়ন্ত্রণ নেওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সৈন্যরা বিমানবন্দরের ভেতরের অংশ নিয়ন্ত্রণ করে আসছে। আর তালেবান যোদ্ধারা বিমানবন্দরের বাইরের এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে।  বৃহস্পতিবারও তারা বলেছিল, কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বাইরে অপেক্ষারত হাজার হাজার মানুষকে নিরাপত্তা দিতে তারা প্রস্তুত।  

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ