বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

সৌদি আরব ও ইরানের বৈরিতা কমাতে চায় ইরাক

২৫ আগস্ট, রয়টার্স : বাগদাদে এক শীর্ষ সম্মেলনে ইরান ও মধ্যপ্রাচ্যে প্রভাব বিস্তার নিয়ে দেশটির সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় লিপ্ত আরব রাষ্ট্রগুলোকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে ইরাক। তেহরান ও  পারস্য উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর মধ্যে বিদ্যমান উত্তেজনা সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশ কয়েকবারই দুই পক্ষকে মুখোমুখি যুদ্ধের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গিয়েছিল; এই বৈরিতা কমিয়ে আনার লক্ষ্যেই বাগদাদে ওই সম্মেলন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা। ইয়েমেনের যুদ্ধ, লেবাননের সমস্যা ও আঞ্চলিক পানি সংকট নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি এ সম্মেলন সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে সৌহার্দ্য পুনঃপ্রতিষ্ঠার পথে একটি পদক্ষেপ হতে পারে বলে আশা কর্মকর্তাদের।

তবে সম্মেলনে কোন পর্যায়ের প্রতিনিধি পাঠানো হবে, তেহরান বা রিয়াদ কেউই এখনও এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি।

রয়টার্স লিখেছে, দীর্ঘদিনের প্রতিদ্বন্দ্বী সৌদি আরব ও ইরানের মধ্যে টানাপোড়েন আরও তীব্র হয় ২০১৯ সালে। ওই বছরের সেপ্টেম্বরে সৌদি তেলক্ষেত্রে এক হামলায় দেশটির তেলের উৎপাদন অর্ধেকে নেমে যায়। রিয়াদ ওই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করলেও তেহরান প্রথম থেকেই তা অস্বীকার করে আসছে।

কট্টর সুন্নি শাসনাধীন সৌদি আরব ও শিয়া সংখ্যাগরিষ্ঠ ইরান ইয়েমেনের যুদ্ধেও প্রতিপক্ষ দুই শিবিরে অবস্থান করছে। ২০১৬ সালে দেশ দুটি একে অপরের সঙ্গে সম্পর্কও ছিন্ন করে। তবে চলতি বছর এপ্রিলে ইরাকে দুই দেশের কর্মকর্তাদের মধ্যে ফের সরাসরি কথাবার্তা শুরু হয়।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ