বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

আলজেরিয়ায় দাবানলে ২৫ সেনা সদস্যসহ ৪২ জনের প্রাণহানি

১১ আগস্ট, রয়টার্স, এএফপি : আলজেরিয়ায় দাবানলে অন্তত ৪২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। গত মঙ্গলবার দেশটির সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে। আলজেরিয়া সরকার বলছে, উদ্দেশ্যমূলকভাবে আগুন লাগানো হয়েছে। তীব্র দাবদাহ ও শুষ্ক আবহাওয়ার কারণে তা দাবানলে রূপ নিয়েছে। বার্তা সংস্থার প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

আলজেরিয়ায় কর্তৃপক্ষ বলছে, দাবানলে যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন, তাদের মধ্যে ২৫ সেনাসদস্য ও ১৭ বেসামরিক নাগরিক।

আলজেরিয়ার উত্তরাঞ্চলের ১৮টি প্রদেশের ৭০টির বেশি স্থানে দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। দাবানল সবচেয়ে ভয়াবহ আকার নিয়েছে কাবিলি অঞ্চলে। রাজধানী আলজিয়ার্সের পূর্বে অবস্থিত এ অঞ্চলে আগুন সবকিছু গ্রাস করছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া কিছু ছবিতে দেখা যায়, কাবিলির পাহাড়ি বন পুড়ে বিশাল ধোঁয়ার কু-লী সৃষ্টি হয়েছে। অঞ্চলটির তিজি ওউজৌ এলাকার ১০টি স্থানে আগুন জ্বলছে।

২৫ সেনাসদস্যের মৃত্যুর ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন আলজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট আবদেল মাদজিদ তেবিউন। এক টুইট বার্তায় তিনি বলেন, ‘বেজাইয়ে ও তিজি ওউজৌ এলাকার ১০০ জনের মতো বাসিন্দাকে সফলভাবে উদ্ধার করার পর ২৫ সেনাসদস্য শহীদ হয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। এ ঘটনা আমাকে খুবই মর্মাহত করেছে।’

খবরে বলা হয়, ওই এলাকা দুটিতে উদ্ধারকাজ চালাতে গিয়ে সেনাসদস্যদের মৃত্যু হয়। আহত হয়েছেন ১৪ সেনাসদস্য।

আলজেরিয়ার প্রধানমন্ত্রী আইমান বেনাবদেররাহমানে জানিয়েছেন, তিজি ওউজৌ ও সেতিফ এলাকায় দাবানলে ১৭ জন বেসামরিক ব্যক্তি প্রাণ হারিয়েছেন।

উদ্দেশ্যমূলকভাবে আগুন লাগানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন আলজেরিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কামেল বেলদজৌদ। তিজি ওউজৌ এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে তিনি বলেন, একই সময়ে ৫০টি স্থানে আগুন লাগার ঘটনা অসম্ভব। আগুন লাগানোর পেছনে অপরাধীদের হাত রয়েছে।

উদ্দেশ্যমূলকভাবে আগুন লাগানোর অভিযোগে দেশটির মেদেয়া ও আন্নাবা জেলা থেকে সন্দেহভাজন তিন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় বেতার।

শুধু আলজেরিয়াই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত দাবানলের আগুনে পুড়ছে। দাবানল মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র, গ্রিস, তুরস্ক ও সাইপ্রাস। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাবকে দাবানলের পেছনের কারণ হিসেবে উল্লেখ করছেন বিশেষজ্ঞরা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ