বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

৩ কোটির বেশি ভাড়াটে মার্কিনি উচ্ছেদ হতে পারেন

৩০ জুলাই,  রয়টার্স : মার্কিন কংগ্রেস জরুরি উদ্যোগ গ্রহণ না করলে যুক্তরাষ্ট্রের সাড়ে তিন কোটির বেশি বাসিন্দাকে আগামী আগস্টে ভাড়া বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে হবে। কারণ, ভাড়াটে উচ্ছেদের ওপর যে ফেডারেল নিষেধাজ্ঞা রয়েছে, তা আজ শনিবারই শেষ হচ্ছে।

সুনির্দিষ্ট আইনি প্রস্তাব ছাড়া ভাড়া পরিশোধ করতে না পারা লোকজনকে উচ্ছেদের মেয়াদ আর বর্ধিত না করার কথা বলে দিয়েছেন মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট। এরপর প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, সুপ্রিম কোর্টের এমন নির্দেশনার পর উচ্ছেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা বর্ধিত করার আর সুযোগ নেই। তাই এ জন্য কংগ্রেসকে দ্রুত উদ্যোগ নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

২০২০ সালের মার্চের মাঝামাঝি সময় থেকে যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাস সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। সে সময় যুক্তরাষ্ট্রে দীর্ঘদিন লকডাউন চলে। মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েন। মানুষের পক্ষে বাসাভাড়া দেওয়াও কঠিন হয়ে পড়ে। পরিস্থিতি সামাল দিতে প্রথমে তিন মাসের জন্য ভাড়া না দেওয়ার জন্য কোনো ভাড়াটেকে উচ্ছেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। পরে এই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ কয়েক দফা বাড়ানো হয়।

নাগরিক প্রণোদনা এবং বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ভাড়াটেদের সহযোগিতা দেওয়া হলেও গত মার্চের তথ্য অনুযায়ী প্রায় ৭০ লাখ মানুষ জানিয়েছেন, তাঁদের বাড়িভাড়া হালনাগাদ নেই। ভাড়া না পাওয়ায় বাড়ির মালিকেরা পড়েছেন আরও বিপাকে। ঘরের জন্য ঋণের কিস্তি পরিশোধ, নগর শহরের কর পরিশোধ, বিদ্যুৎ, পানির বিল হালনাগাদ করতে হচ্ছে। বিষয়টি আদালত পর্যন্ত গড়ালে মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট গত মাসে জুলাই পর্যন্ত উচ্ছেদ নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ অনুমোদন করেন। বিচারপতি ব্র্যারেট ক্যাভানাগহ বলেছেন, কংগ্রেসের সুনির্দিষ্ট আইন প্রস্তাব ছাড়া ভাড়াটে উচ্ছেদের মেয়াদ বর্ধিত করার যেকোনো উদ্যোগ তিনি প্রতিহত করবেন।

ইউএস সেন্সাস ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, জুলাইয়ের পাঁচ তারিখ পর্যন্ত ৩ কোটি ৬০ লাখ লোকজনের ঘরভাড়া বাকি পড়ে আছে। তাঁদের উচ্ছেদ করা হতে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে। এই হিসাবে তালিকাভুক্ত ভাড়াটেদের শুধু ধরা হয়েছে। এর বাইরে অগুনতি খুচরা ভাড়াটের হিসাব নথিতে নেই। উচ্ছেদ আইনত বন্ধ থাকায় বাড়ির মালিকেরা ভাড়া না পেয়ে আইনের আশ্রয় নেওয়ার সুযোগ পাননি।

আবাসন নিয়ে নাগরিক আন্দোলন করে এমন সংগঠন ও ব্যক্তিবিশেষের পক্ষ থেকে ভাড়াটে উচ্ছেদের মেয়াদ আবারও বাড়ানোর দাবি জানানো হয়েছে। তাঁরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে এখনো মহামারি বিরাজ করছে। নতুন ডেলটা ভাইরাসের সংক্রমণের কারণে লোকজনের মধ্যে এখনো ভীতি বিরাজ করছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত বাড়িভাড়ার কারণে ভাড়াটেদের উচ্ছেদ না করার দাবি জানানো হচ্ছে।

ন্যাশনাল লো ইনকাম হাউজিং কোয়ালিশন সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক ড্যানিয়েল ওয়াইন্টেল বলেছেন, ডেলটা ভাইরাস সংক্রমণের এ সময়ে বাইডেন প্রশাসনের ভাড়াটেদের পাশে দাঁড়ানো উচিত। সুপ্রিম কোর্টের ঢালাও নির্দেশনাকে বিবেচনায় রেখেই ভাড়াটেদের উচ্ছেদের হাত থেকে রক্ষা করা এ মুহূর্তে সরকারের নৈতিক দায়িত্ব বলে তিনি মনে করেন।

কংগ্রেস এর মধ্যে ভাড়াটেদের ঘরভাড়া পরিশোধ করার জন্য ৪৭ বিলিয়ন ডলারের অনুমোদন দিয়েছে। কংগ্রেসের বরাদ্দ থেকে প্রথম দফা ২৫ বিলিয়ন ডলার বিতরণ করা হয়েছে। এর মধ্যে এখন পর্যন্ত মাত্র তিন বিলিয়ন ডলার সরাসরি ভাড়াটে বা বাড়ির মালিকের কাছে পৌঁছেছে।

আজ শনিবারের পর বাড়ির মালিকেরা উচ্ছেদের জন্য আদালতে যেতে পারবেন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ