ঢাকা, মঙ্গলবার 28 September 2021, ১৩ আশ্বিন ১৪২৮, ২০ সফর ১৪৪৩ হিজরী
Online Edition

পাকিস্তানে ৪৬ আফগান সেনার আশ্রয় প্রার্থনা

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: সীমান্ত এলাকায় তালেবান হামলায় সামরিক ফাঁড়ির নিয়ন্ত্রণ হারানোর পর ৪৬ আফগান সেনা পালিয়ে গিয়ে পাকিস্তানের আশ্রয় প্রার্থনা করেছে বলে জানিয়েছে পাক সেনাবাহিনী।

আফগানিস্তানে সীমান্ত এলাকাগুলোতে তালেবান অগ্রযাত্রার মুখে সম্প্রতি কয়েক সপ্তাহে শত শত সেনা ও সরকারি কর্মকর্তা প্রতিবেশী দেশ তাজিকিস্তান, ইরান এবং পাকিস্তানে পালিয়ে গেছে।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী সোমবার এক বিবৃতিতে বলেছে, আফগান সেনা কমান্ডাররা উত্তরের চিত্রাল সীমান্ত পারাপার এলাকায় আশ্রয় চেয়েছেন। আফগান কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ছাড়পত্র পাওয়ার পর এই সেনাদেরকে রোববার রাতে নিরাপদ এলাকা দিয়ে পাকিস্তানে ঢুকতে দেওয়া হয়েছে।

“আফগান সেনাদেরকে খাবার, আশ্রয় এবং সেনাবাহিনীর নিয়মানুযায়ী প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়েছে”, জানানো হয় বিবৃতিতে।

আফগানিস্তান এবং পাকিস্তানের নাজুক সম্পর্কের মধ্যে সেনা আশ্রয়ের এই ঘটনা ঘটল। এ মাসের শুরুর দিকে ইসলামাবাদে আফগান রাষ্ট্রদূতের মেয়ে অপহরণের পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তান থেকে সব কূটনীতিক প্রত্যাহার করে নেয় আফগানিস্তান। এতে দু’দেশের সম্পর্ক নাজুক হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র গত এপ্রিলে আফগানিস্তান থেকে সেপ্টেম্বর সময়সীমার মধ্যে সব বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়ার পর থেকেই দেশটিতে তালেবান হামলা বেড়েছে। ওয়াশিংটন বলেছে, তারা তালেবান হামলার মুখে থাকা আফগান বাহিনীকে বিমান হামলা চালিয়ে সহায়তা করবে।

সম্প্রতি আফগান সরকার এবং তালেবানের মধ্যে কাতারের দোহায় শান্তি আলোচনা হলেও তাতে অগ্রগতির খুব একটা লক্ষণ দেখা যায়নি বলেই জানিয়েছেন কূটনীতিকরা।

উল্টো যুদ্ধক্ষেত্রে তালেবানের হামলার মুখে আফগানিস্তানের সেনাবাহিনী এখন রণকৌশল ঢেলে সাজাচ্ছে। রাজধানী কাবুল ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ নগরী, সীমান্ত ক্রসিং এবং গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো ঘিরে সেনাসমাবেশ করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আফগান ও মার্কিন কর্মকর্তারা।

পাকিস্তানের সেনাবাহিনী জানিয়েছে, যেসব আফগান সেনা আশ্রয় নিয়েছেন তাদেরকে প্রক্রিয়ামাফিক আবার আফগানিস্তানে ফেরত পাঠানো হবে, যেভাবে এর আগে জুলাইয়েও ৩৫ সেনার আরেকটি দলকে ফেরত পাঠানো হয়েছিল।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ