বৃহস্পতিবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

সাঁতারে বিশ্বরেকর্ড অস্ট্রেলিয়ার

কামরুজ্জামান হিরু : টোকিও অলিম্পিকে সাঁতারে পদকের লড়াইটা হবে অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে, তা আগেই ধারণা করা হয়েছিল। গেমসের অন্যতম উত্তেজনাপূর্ণ এ ইভেন্টের প্রথম থেকেই সত্যি প্রমাণিত হলো সেই ধারণা। সাঁতারের প্রথম দিনই বিশ্বরেকর্ড গড়েছে অস্ট্রেলিয়া। ৪*১০০ মিটার রিলেতে জিতে নিয়েছে স্বর্ণপদক। তবে ৪০০ মিটার ব্যক্তিগত মেডলিতে আবার বাজিমার করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ৪*১০০ মিটার রিলেতে স্বর্ণ জেতার পথে অস্ট্রেলিয়ার চার সাঁতারু ব্রোন্তে ক্যাম্পবেল, মেগ হ্যারিস, এমা ম্যাককেওন ও ক্যাট ক্যাম্পবেল মাত্র ৩ মিনিট ২৯.৬৯ সেকেন্ডে রেস শেষ করেছেন। এর আগের বিশ্বরেকর্ডও ছিল অস্ট্রেলিয়ার। ২০১৮ সালে এই ইভেন্টে ৩ মিনিট ৩০.০৫ সেকেন্ডে রেস শেষ করেছিল অস্ট্রেলিয়ার সাঁতারুরা। এবারের অলিম্পিকে ৪*১০০ রিলেতে সিলভার ও ব্রোঞ্জের লড়াই হয়েছে হাড্ডাহাড্ডি। যেখানে ৩ মিনিট ৩২.৭৮ সেকেন্ডে রেস শেষ করে সিলভার জিতেছে কানাডা। আর ব্রোঞ্জ জেতা যুক্তরাষ্ট্রের সময় লেগেছে ৩ মিনিট ৩২.৮১ সেকেন্ড।এছাড়া পুরুষদের ৪০০ মিতার ব্যক্তিগত মেডলিতে স্বর্ণ জিতেছেন যুক্তরাষ্ট্রের চেজ কালিজ। রেস শেষ করতে তার সময় লেগেছে ৪ মিনিট ৯.৪২ সেকেন্ড।একই ইভেন্টে দ্বিতীয় হয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আরেক সাঁতারু জয় লিদারল্যান্ড (৪ মিনিট ১০.২৮ সেকেন্ড) ও তৃতীয় হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার স্মিথ ব্রেন্ডন (৪ মিনিট ১০.৩৮ সেকেন্ড)।
ব্রেস্ট স্ট্রোকেও রেকর্ড
তাতিয়ানা শোয়েনমেকার: ১০০ মিটার ব্রেস্ট স্ট্রোকের হিটে অলিম্পিক রেকর্ড গড়লেন দক্ষিণ আফ্রিকার তাতিয়ানা শোয়েনমেকার। ১ মিনিট ৪.৮২ সেকেন্ডে নিজের হিট শেষ করেছেন শুয়েনমেকার। বিশ্ব রেকর্ড ও সদ্য অলিম্পিক রেকর্ড হারানো লিলি কিং তাঁর হিট শেষ করেছেন ১ মিনিট ৫.৫৫ সেকেন্ডে।
সাঁতারের পুলে রেকর্ডের ঝড়: ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকের হিটে অলিম্পিক রেকর্ড ভেঙেছেন কানাডার কাইলি ম্যাসে। রিও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জেতা এই সাঁতারু ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোকের বর্তমান বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন। গতকাল ৫৮.১৭ সেকেন্ডে নিজের হিট শেষ করেছেন ম্যাসে। এর আগের রেকর্ডটি ছিল এমিলি সিবোহমের। লন্ডন অলিম্পিকে ৫৮.২৩ সেকেন্ডে ১০০ মিটার ব্যাকস্ট্রোক শেষ করেছিলেন সিবোহম।কিন্তু পরের হিটেই ম্যাসের রেকর্ড ভেঙে গেছে। দুই মিনিট আগেই হওয়া রেকর্ড থেকে সেকেন্ডের ২১ ভাগ কমিয়ে এনেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রেগান স্মিথ (৫৭.৯৬)। অলিম্পিক গেমসে প্রথম কোনো নারী হিসেবে ১০০ মিটার ব্যাক স্ট্রোকে ৫৮ সেকেন্ডের নিচে সাঁতরালেন কেউ। সে রেকর্ডও টিকল মাত্র মিনিট খানিক। ছয় নম্বর হিটে নেমেছিলেন বর্তমান বিশ্ব রেকর্ডধারী কাইলি ম্যাককিওন। অস্ট্রেলিয়ান এই সাঁতারু ৫৭.৮৮ সেকেন্ডে হিট শেষ করেছেন।
অলিম্পিক রেকর্ড গড়ে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলের সোনা যুক্তরাষ্ট্রে: স্বপ্নের মতো একটা দিন কাটল উইলিয়াম শানারের। ২০ বছর বয়সী যুক্তরাষ্ট্রের এই শুটার অলিম্পিক রেকর্ড গড়ে জিতেছেন সোনা। তাঁর পয়েন্ট ২৫১.৬।
রেকর্ড গড়ে রাশিয়ান শ্যুটারের স্বর্ণ জয়: টোকিও অলিম্পিকে ভিতালিনা বাতসারাশকিনার হাত ধরে প্রথম সোনা জিতলো আরওসি (রাশিয়া)। রোববার আসাকা শ্যুটিং রেঞ্জে মেয়েদের ১০ মিটার এয়ার পিস্তলে ২৪০.৩ স্কোর নিয়ে অলিম্পিকের রেকর্ড গড়ে সোনা জিতেন ভিতালিনা। ২৩৯.৪ স্কোর নিয়ে এ ইভেন্টে রুপা পেয়েছেন বুলগেরিয়ার আন্তোয়ানেতা কস্তাদিনোভা। এ ইভেন্টের বাছাইয়ে ৫৮৭ স্কোর নিয়ে বিশ্বরেকর্ড ছোঁয়া চীনের জিয়াং রানশিনের সঙ্গী হয়েছে ব্রোঞ্জ পাওয়ার হতাশা।এটি অলিম্পিকের বাছাইয়ের রেকর্ডও। জিয়াং ভাগ বসিয়েছেন ২০১৮ সালে গ্রিসের আন্না কোরাকাকির বিশ্বরেকর্ডে। এ ইভেন্টে হতাশ করেছেন আরুনোভিচ জোরানা। ২০১৭ সালে ২৪৬.৯ স্কোর নিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়া সার্বিয়ান এই শ্যুটার টোকিওতে বাছাইয়ে বাদ পড়েন ১৭তম হয়ে।
সোনা জয়ে চীন-জাপানের পরই যুক্তরাষ্ট্র: এবারের অলিম্পিকে যুক্তরাষ্ট্রের শুরুটা ভালো হয়নি। ১৯৭২ সালে মিউনিখ অলিম্পিকের পর এই প্রথম কোনো অলিম্পিকের প্রথম দিনে সোনা জেতেনি যুক্তরাষ্ট্র। আজ প্রত্যাশিত আরেকটি পদকও খুইয়েছে তারা। মেয়েদের ৩ মিটার সিক্সেক্রানাইজড স্প্রিং বোর্ডে চীনের সঙ্গে সোনার লড়াই হওয়ার কথা ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। কিন্তু একটা ভুলে অষ্টম হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।এর মাঝেই একটি সুখবর পেল দেশটি। তায়কোয়ান্দোর মেয়েদের ৫৭ কেজির ওজন শ্রেণির ফাইনালে রাশিয়ার তাতিয়ানাকে ২৫-১৭ ব্যবধানে হারিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের আনস্তাসিয়া জোলোতিচ।
ফ্রান্সের সোনা জয়: ফেন্সিংয়ের পুরুষের এইপে ইভেন্টে সোনা জিতেছেন ফ্রান্সের রোমেইন ক্যানু। শেষ আটটি পয়েন্ট জিতে হাঙ্গেরির গের্গলি সিকলোস্কিকে ১৫-১০ ব্যবধানে হারিয়ে দিয়েছেন ক্যানু। ১৯৯২ সালে বার্সেলোনা অলিম্পিকের পর এইপেতে প্রথম সোনা ফ্রান্সের।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ