বৃহস্পতিবার ০২ ডিসেম্বর ২০২১
Online Edition

ঈদের ছুটির তিনদিনে করোনায় প্রাণ গেছে ৫৬০ জনের

স্টাফ রিপোর্টার : ২০, ২১ এবং ২২ জুলাই এই তিন দিন ছিল ঈদুল আযহার ছুটির দিন। ঈদের ছুটির এই তিন দিনে করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৫৬০ জনের প্রাণ গেছে। ২২ জুলাই করোনায় ১৭৩ জনের মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এর আগের দিন অর্থাৎ ঈদের দিন করোনায় ১৮৭ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানায় সরকার। এর আগের দিন ২০ জুলাই ২০০ মৃত্যুর খবর আসে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে। এই তিন দিনে আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে তিন হাজার ৬৯৭ জন, ৭ হাজার ৬১৪ জন এবং ১১ হাজার ৫৭৯ জন। সব মিলিয়ে প্রায় ২১ হাজার।
 স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিসংখ্যান  অনুযায়ী ঈদুল আযহার পরদিন অর্থাৎ ২২ জুলাই বুধবার করোনায় দেশে ১৮৭ জনের মৃত্যুর খবর আসে। মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় তাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানানো হয। একই সময় প্রাণঘাতী ভাইরাসটি আরও তিন হাজার ৬৯৭ জনের দেহে শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, এদিন ২৪ ঘণ্টায় ১০ হাজার ৮৯৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। তাদের মধ্যে শনাক্তের হার ছিল ৩২.১৯ শতাংশ।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওইতির করোনা থেকে সুস্থ হন ৮ হাজার ৫৬৬ জন। আর মোট সুস্থ রোগীর সংখ্যা নয় লাখ ৬৯ হাজার ৬১০ জন। এ পর্যন্ত করোনা শনাক্তের গড় হার ১৫ দশমিক ৪৬ শতাংশ। সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ০৪ শতাংশ। করোনায় মৃত্যু হার ১ দশমিক ৬৪ শতাংশ।
নতুন করে মারা যাওয়া ১৮৭ জনের মধ্যে ১১৭ জন পুরুষ আর ৭০ জন নারী ছিল। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগের ৭৫ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ২৩ জন, রাজশাহী বিভাগের ১০ জন, খুলনা বিভাগের ৪৪ জন, বরিশাল বিভাগের ১১ জন, সিলেট বিভাগের চার জন, রংপুর বিভাগের ১৫ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগের পাঁচজন। এর মধ্যে দুইজন বাসায় মারা গেছেন। বাকিদের ১৫৭ জন সরকারি হাসপাতালে এবং ২৮ জন বেসরকারি হাসপাতালে মারা গেছেন।
এদিকে ঈদের দিন  করোনায় ১৭৩ মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।  এই সময়ে সংক্রমণ ধরা পড়েছে ৭ হাজার ৬১৪ জনের শরীরে। ঈদের দিন বুধবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
এতে বলা হয় দেশে এ পর্যন্ত করোনা ধরা পড়ে ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৫০৩ জনের শরীরে। এর মধ্যে মৃত্যু হয় ১৮ হাজার ৪৯৮ জনের। একদিনের ব্যবধানে প্রায় চার হাজার রোগী শনাক্তের সংখ্যা কমে আসলেও শনাক্তের হার বেড়েছে, ৩০ দশমিক ৪৮ শতাংশ। মঙ্গলবার রোগী শনাক্তের সংখ্যা ছিল ১১ হাজার ৫৭৯ জন। অবশ্য, কুরবানি ঈদের ছুটি থাকায় নমুনা পরীক্ষাও অনেক কম হয়।
এদিকে ঈদের আগের দিন ২০ জুলাই কোভিডে আরও ২০০ মৃত্যু হয়। শনাক্ত  হয় ১১ হাজার ৫৭৯ জন। এর আগের দিন রেকর্ড  পরিমাণ মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পরদিন দেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমে আসে, দৈনিক শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও নেমে এসেছে ১১ হাজারের ঘরে।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায় মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে সাড়ে ৩৯ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে ১১ হাজার ৫৭৯ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১১ লাখ ২৮ হাজার ৮৮৯ জন। করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে গত এক দিনে মারা গেছেন আরও ২০০ জন। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত মোট ১৮ হাজার ৩২৫ জনের মৃত্যুর খবর সরকারের খাতায় এসেছে।
কেবল ঢাকা বিভাগেই এ দিনে ৪ হাজার ৮৫৬ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, যা দিনের মোট শনাক্তের প্রায় ৪২ শতাংশ। চট্টগ্রাম বিভাগে রোগী শনাক্ত বেড়ে হয়েছে ২ হাজার ৬৩২ জন। আর যে ২০০ জন গত এক দিনে মারা গেছেন, তাদের ৭৩ জনই ছিলেন ঢাকা বিভাগের বাসিন্দা। খুলনা বিভাগে ৫০ এবং চট্টগ্রাম বিভাগে ৪৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। সরকারি হিসাবে ঐ এক দিনে আরও ৯ হাজার ৯৯৭ জন সুস্থ হয়ে উঠেন। এ পর্যন্ত মোট সুস্থ হন ৯ লাখ ৫১ হাজার ৩৪০ জন।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ