রবিবার ২৮ নবেম্বর ২০২১
Online Edition

সিলেটে করোনায় ১০ দিনে ৩৯ মৃত্যু!

সিলেট ব্যুরো : করোনা ভাইরাসের বেসামাল ঝড় কিছুতেই থামছে না সিলেটে। প্রতিদিন শত শত মানুষ এই মরণব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছেন। সাথে চলছে মৃত্যুর মিছিলও। সর্বশেষ ১০ দিনেই সিলেটজুড়ে করোনাক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৩৯ জন! গেল বছর মার্চে দেশে করোনা হানা দেওয়ার পর থেকে এতো কম সময়ে সিলেট অঞ্চলে এতো বেশি মৃত্যু হয়নি।
এই ১০ দিনে নতুন করে করোনার সংক্রমণ হয়েছে ২ হাজার ৯৬০ জন মানুষের মধ্যে। একই সময়ে সুস্থ হওয়া মানুষের সংখ্যা অনেক কম, মাত্র ১ হাজার ৬০ জন। স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।
বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডা. সুলতানা রাজিয়ার দেওয়া তথ্যানুসারে, ৩০ জুন সকাল ৮টা থেকে ১ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত মারা যান ৭ জন। এ সময়ে করোনাক্রান্ত হন ১৯৯ জন। সুস্থ হন ৯৯ জন। ওই সময় অবধি সিলেট বিভাগে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ২৫ হাজার ৯৮১ জন। মারা গিয়েছিলেন ৪৭৮ জন। সুস্থতার সংখ্যা ছিল ২৩ হাজার ৬৭২ জন।
১ জুলাই সকাল ৮টা থেকে ২ জুলাই সকাল ৮টা পর্যন্ত মারা যান ২ জন, আক্রান্ত সনাক্ত হন ৩০২ জন। এ সময়ে সুস্থ হন আরও ১০৫ জন। পরবর্তী চব্বিশ ঘন্টায় ২০৩ জন আক্রান্ত হওয়ার সাথে একজনের মৃত্যু ও ৫৬ জনের সুস্থতার তথ্য দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর বিভাগীয় কার্যালয়। ৩ জুলাই সকাল ৮টা থেকে ৪ জুলাই সকাল ৮টা অবধি মারা যান আরও ২ জন। এ সময়ে আক্রান্ত সনাক্ত হন ২২৮ জন, সুস্থ হন ১৪৭ জন। এর পরের চব্বিশ ঘন্টায় করোনা হানা দেয় মৃত্যুদূত হয়ে। এ সময়ে মারা যান তখন অবধি সর্বোচ্চ ৮ জন। ১০৬ জন সুস্থ হওয়ার বিপরীতে আক্রান্ত সনাক্ত হন ২৫৩ জন। ৬ জুলাই সকালে স্বাস্থ্য অধিদফতর বিভাগীয় কার্যালয় জানায়, পূর্বের চব্বিশ ঘন্টায় সিলেট অঞ্চলে সর্বোচ্চ ৩৮৭ জন করোনাক্রান্ত সনাক্ত হয়েছেন। এ সময়ে মারা যান ২ জন, সুস্থ হন ১৩১ জন। পরের চব্বিশ ঘন্টায় পূর্বের রেকর্ড ভেঙে সিলেট অঞ্চলে মারা যান ৯ জন। ৩৬২ জন আক্রান্তের বিপরীতে সুস্থ হন ১২৫ জন। ৮ জুলাই সকাল ৮টা অবধি পূর্ববর্তী ২৪ ঘন্টায় করোনাক্রান্তের নতুন রেকর্ড হয় সিলেটে। এ সময়ে ৩৮৯ জন আক্রান্ত সনাক্ত হন, মারা যান ৩ জন, সুস্থ হন ১৩৬ জন। কিন্তু পরদিনই করোনা সংক্রমণের সকল রেকর্ড ভেঙে যায় সিলেটে। করোনাকালে এই প্রথম এ অঞ্চলে চার শতাধিক (৪৪২ জন) মানুষ আক্রান্ত হিসেবে সনাক্ত হন। এ চব্বিশ ঘন্টায় আরও ৬ জনের মৃত্যু দেখে সিলেট। দুঃসহতার কবল থেকে মুক্তি পান ১৩৬ জন। গত শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে গতকাল শনিবার সকাল ৮টা অবধি সিলেট বিভাগে মারা গেছেন আরও ৬ জন। এ সময়ে আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছেন ৩৯৪ জন, সুস্থ হয়েছেন ১১৮ জন।
তথ্যের বিশ্লেষণ বলছে, সর্বশেষ ১০ দিনে সিলেট বিভাগে মারা যাওয়া ৩৯ জনের মধ্যে সিংহভাগই সিলেট জেলার। এ জেলায় মারা গেছেন ২৮ জন। বাকিদের মধ্যে সুনামগঞ্জের ৩ জন, মৌলভীবাজারের ৫ জন ও হবিগঞ্জ জেলার ৩ জন রয়েছেন।  এই সময়ে আক্রান্তদের মধ্যেও সিলেট জেলার সবচেয়ে বেশি মানুষ রয়েছেন। সিলেটে আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৯০৩ জন। সুনামগঞ্জে ২৩৬ জন, মৌলভীবাজারে ৪৯৪ জন ও হবিগঞ্জে ৩২৭ জন।
সর্বশেষ ১০ দিনে গড়ে প্রতিদিন মারা গেছেন প্রায় চারজন (৩.৯ জন)। এ সময়ে প্রতিদিন গড়ে আক্রান্ত হয়েছেন ২৯৬ জন। আর গড়ে প্রতিদিন সুস্থ হয়েছেন ১০৬ জন করে।
গতকাল শনিবার সকাল পর্যন্ত সিলেট বিভাগে করোনাক্রান্তের সংখ্যা ২৮ হাজার ৯৪১ জন। মৃতের সংখ্যা ৫১৭ জন, সুস্থতার সংখ্যা ২৪ হাজার ৭৩২ জন।
এদিকে, সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির কারণ হিসেবে সংশ্লিষ্টরা মানুষের বেপরোয়া মনোভাবকে দায়ী করছেন। তারা বলছেন, লকডাউনের মধ্যেও অযথা বাইরে ঘোরাফেরা করছেন অনেকেই। স্বাস্থ্যবিধি না মানার প্রবণতাও রয়েছে মানুষের। ফলে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে।
স্বাস্থ্য অধিদফতর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ নূরে আলম শামীম বলেন, সরকার নির্দেশিত কঠোর লকডাউন অবশ্যই কঠোরভাবে মানতে হবে। একেবারে জরুরি প্রয়োজনে বাইরে বেরোলে অবশ্যই স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, মাস্ক পরিধান করতে হবে। অন্যথায় সংক্রমণ ঠেকানো যাবে না।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ