শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

চরফ্যাশন-দক্ষিণ আইচা সড়কের বেহালদশা : সংস্কার জরুরি

এম লোকমান হোসেন, চরফ্যাশন (ভোলা) : ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার শশীভুষণ বাজার - দক্ষিণ আইচা মহাসড়কের ১৮ কিলোমিটার সড়কের  বিভিন্ন স্থানে পিচ-খোয়া উঠে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে যাত্রী বাহী মালবাহী যানবাহন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে । প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট বড় দুর্ঘটনা। রোগীবাহী এ্যাম্বুলেন্স বিকল্প পথে চলাচল করতে বাধ্য হচ্ছে। প্রায় ১ বছর যাবৎ সড়কটি বেহাল দশায় পরিণত হলেও সড়ক ও জনপথ বিভাগ কোন গুরুত্ব না দেয়ায় প্রায় ২ লক্ষ মানুষের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত।
ভুক্তভোগী সড়কে প্রতিনিয়ত চলাচলকারী গ্রামীণ ফোন কোম্পানীর রিটেইলার ভাস্কর সাংবাদিককে বলেন, জীবনের ঝুকিঁ নিয়ে চাকুরীর স্বার্থে মোটর সাইকেল নিয়ে চলাচল করতে হয়। ভোলা জেলা বাস মালিক সমিতির বাস চালক মমিন বলেন, ভোলা সদর থেকে শশীভুষন পযর্ন্ত যাত্রী নিয়ে আসতে কোন সমস্যা না হলেও ১২ কিলোমিটার রাস্তায়  বড় বড় গর্তে গাড়ি আটকে যায়। রাস্তায় উভয় পার্শ্বে একই অবস্থার কারণে অনেক সময় বিপরীতগামী যানবাহনের মুখোমুখি হতে হয়।  
পর্যটনকেন্দ্র ও ইকোপার্ক ঘোষিত চরকুকরী মুকরী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ আবুল হাসেম মহাজন জানান, ভ্রমণপিপাসুরা এই রাস্তা দিয়েই চলাচল করতে হয়। সড়কের নাজুক অবস্থার মধ্যে পড়ে তাদের মধ্যে বিরক্তির  বর্হিপ্রকাশ দেখা দেয়। ঢালচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুস ছালাম হাওলাদার বলেন, বালুরচর খ্যাত সমুদ্র সৈকত তারুয়া ভিন্ন জেলার মানুষের মন কাড়লেও সড়কের বেহালদশার কারণে দিন দিন জনপ্রিয়তা হ্রাস পাচ্ছে।  
 এ সড়কের শশীভূষণ থানার সামনে, কলমির মোড়,কলের হাট,উত্তর আইচা  মোড়, বেপারী বাড়ির দরজা, হলুদ বিল্ডিং স্কুল সংলগ্ন বাজার, সড়ক ও জনপদ ভোলা  বিভাগের নির্বাহী  প্রকৌশলী  মো. নাজমুল ইসলাম বলেন, শশীভূষণ থেকে দক্ষিণ আইচা সড়কের ১১ কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারের জন্য বরাদ্ধ হয়েছে। ঠিকাদার বর্ষার জন্য কাজ হাতে নিচ্ছে না, বর্ষা কমে গেলে খুব শীগ্রই কাজ শুরু হবে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ