সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

চুয়াডাঙ্গায় করোনায় মারা গেছে আরও ৯ জন ॥ নতুন শনাক্ত ১০৬

চুয়াডাঙ্গা সংবাদদাতা : চুয়াডাঙ্গায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে আরও নয়জনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় নতুন করে ১০৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। গত শনিবার রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. এএস এম ফাতেহ আকরাম। তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় চুয়াডাঙ্গায় করোনায় দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন সাতজন। অপরদিকে ২৫৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১০৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে চুয়াডাঙ্গা সদরে ৩৯,আলমডাঙ্গায় ১১, দামুড়হুদায় ১৬ এবং জীবননগরে ৪০ জন। করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া একজন জীবননগর এবং একজন আলমডাঙ্গার বাসিন্দা। এরা নিজ বাড়িতেই আইসোলেশনে ছিলেন।  উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া সাতজনই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের ইয়োলো জোনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এ নিয়ে জেলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯৪ জনে দাঁড়াল। এ পর্যন্ত জেলায় মৃত্যু হয়েছে ৮৪ জনের এবং জেলার বাইরে ১০ জনের। এদিকে জেলায় ৭৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। সদর হাসপাতালে জ্বর, ঠান্ডা ও শ্বাসকষ্টজনিত রোগীর সংখ্যা ক্রমশঃ বাড়ছে। অনেকেই সর্দি কাশি জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার পরও পরীক্ষা করার জন্য স্বাস্থ্য বিভাগের সঙ্গে যোগাযোগ করছে না। যখন শ্বাসকষ্টে রোগীর অবস্থা সঙ্কটাপন্ন হয়ে পড়ছে তখনই তাকে নেয়া হচ্ছে হাসপাতালে। এতে মৃতের হার বাড়তে শুরু করেছে বলে মনে করছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, বর্তমানে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের রেডজোনে আইসোলেশনে থাকা আক্রান্ত রোগীর চেয়ে হলুদ জোনে চিকিৎসাধীন অর্ধশতাধিক রোগীর অবস্থা বেশি খারাপ। পরিস্থিতি সামলাতে গিয়ে হাসপাতালের চিকিৎসক, নার্স এবং স্বেচ্ছাসেবকেরা হিমশিম খাচ্ছেন। গত শনিবার খুলনা স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ২০ জন নার্স চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে সেবা দেয়ার জন্য পাঠানো হয়েছে। ফলে জনবল সঙ্কট সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের মাঝে স্বস্তি দেখা দিয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ