শনিবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

লকডাউন আতঙ্কে ডিএসই সূচক হারাল ১০০ পয়েন্ট

স্টাফ রিপোর্টার: করোনার সংক্রমণ প্রতিরোধে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে কঠোর লকডাউন কর্মসূচির  ঘোষণা দিয়েছে সরকার। আর এ লকডাউন আতঙ্কে ব্যাপক দরপতন হয়েছে শেয়ারবাজারে। ব্যাংক, বীমা, লিজিং ও ওষুধ খাতের বেশিরভাগ কোম্পানির পাশাপাশি দরপতন হয়েছে প্রায় সবকটি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের। তবে কিছুটা হলেও ব্যতিক্রম চিত্র দেখা গেছে বস্ত্রখাতে। এ খাতের অর্ধেকের বেশি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বেড়েছে।
গতকাল রোববার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শেষে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান সূচক ডিএসইএক্স কমেছে ১০০ পয়েন্ট। সূচকটি নেমে এসেছে ছয় হাজার পয়েন্টের নিচে। লেনদেন শেষে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৯৯২ পয়েন্টে। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ৩০ পয়েন্ট কমে দুই হাজার ১৬৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসইর শরিয়াহ সূচক ১৪ পয়েন্ট কমে এক হাজার ২৮৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। অপর দিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ২৯৮ পয়েন্ট।
সূচকের এই বড় দরপতনের দিনে তালিকাভুক্ত ৫০টি বীমার মধ্যে মাত্র পাঁচটির শেয়ার দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে ৪৪টির দাম কমেছে। বাকি একটির শেয়ার লেনদন হয়নি। অপরদিকে ব্যাংক খাতে তালিকাভুক্ত ৩১টি ব্যাংকের মধ্যে দাম বেড়েছে মাত্র তিনটির। বিপরীতে দাম কমেছে ২৪টির। আর চারটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। তালিকাভুক্ত ৩৭টি মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে ৩৬টিরই দাম কমেছে। বাকি একটির লেনদেন হয়নি। ব্যাংক, বীমা ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের এই দরপতনের মধ্যে কিছুটা হলেও ব্যাতিক্রম চিত্র দেখা গেছে বস্ত্রখাতে। এ খাতের তালিকাভুক্ত ৫৮টি কোম্পানির মধ্যে ৩১টির শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৩টির। আর চারটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।
ডিএসইতে গতকাল লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৭৪০ কোটি টাকার। তবে হাতবদল হওয়া প্রায় সব শেয়ারের দাম কমেছে। লেনদেন শেষে বেড়েছে মাত্র ৫৪টির দর, কমেছে ৩০৬টির, অপরিবর্তিত আছে ১২টির দর। গত কার্যদিবস ডিএসইএক্স সূচক বাড়ে ৫৬ পয়েন্ট। লেনদেন হয় ১ হাজার ৫৯৭ পয়েন্ট।
ডিএসইতে গতকাল লেনদেনের শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো বেক্সিমকো, ডাচ্–বাংলা ব্যাংক, মালেক স্পিনিং, কাট্টালি টেক্সটাইল লিমিটেড, ম্যাকসন স্পিনিং, অ্যাগ্রো ডেনিম, কুইন সাউথ, ড্রাগন সোয়েটার অ্যান্ড স্পিনিং লিমিটেড, মতিন স্পিনিং ও লংকাবাংলা ফাইন্যান্স। দর বাড়ার শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো মতিন স্পিনিং, সোনারগাঁও, অলিম্পিক এক্সেসরিজ লিমিটেড, অ্যাগ্রো ডেনিম, জাহিন স্পিনিং, হুয়া ওয়ে টেক্সটাইলস লিমিটেড, ডেল্টা লাইফ ইনস্যুরেন্স, কুইন সাউথ, জাহিন টেক্সটাইল, শাশা ডেনিমস। দর কমার শীর্ষে থাকা কোম্পানিগুলো হলো রিপাবলিক, সি পার্ল, পাইওনিয়ার ইনস্যুরেন্স, সোনার বাংলা ইনস্যুরেন্স, অগ্রণী ইনস্যুরেন্স, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিকস, প্রগতি ইনস্যুরেন্স, এস আলম কোল্ড রোল স্টিল লিমিটেড, গ্লোবাল ইনস্যুরেন্স ও সাফকো স্পিনিং।
অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই কমেছে ২৯৭ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ২১৪ কোটি ৮ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩১১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৫৮টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৪১টির এবং ১২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ