সোমবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

 আ.লীগ যেভাবে গণতন্ত্র ধ্বংস করেছে সেভাবে পরিবেশও ধ্বংস করছে --- মির্জা ফখরুল 

স্টাফ রিপোর্টার : ক্ষমতাসীন হয়ে আওয়ামী লীগ যেভাবে গণতন্ত্র ধ্বংস করেছে, সেভাবে পরিবেশও ধ্বংস করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল বৃহস্পতিবার  দুপুরে রাজধানীর বেরাইদে ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির আয়োজনে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধনকালে তিনি এ মন্তব্য করেন। এসময় তিনি খালেদা জিয়া ‘অত্যন্ত অসুস্থ’  হয়ে পড়েছেন জানিয়ে তাকে ‘উন্নত চিকিৎসা’ দেওয়ার দাবি জানান । 

ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর রাস্তার পাশে যে বড় বড় গাছ ছিল সেগুলো ধ্বংস করেছে। জেলা পরিষদের যত গাছ ছিল সব নিজেরা ভাগাভাগি করে নিয়েছে। তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ প্রকৃতি ধ্বংস করেছে, পরিবেশ ধ্বংস করেছে, সেই সঙ্গে রাজনৈতিক পরিবেশও ধ্বংস করেছে। সত্যিকার অর্থে বাংলাদেশের মানুষকে তারা চরম বিপদের মধ্যে ঠেলে দিয়েছে। এই যে তুরাগ নদী, সব দখল হয়ে যাচ্ছে। কারা দখল করছে, খোঁজ নিয়ে দেখেন সব আওয়ামী লীগের নেতারা দখল করছে। কারা সেখানে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরি করছে? পাওয়ার প্লান্ট তৈরি হচ্ছে কারা? আওয়ামী লীগের এমপি। এরপর ক্লাব তৈরি হচ্ছে, আওয়ামী লীগের নেতাদের আশ্রয়ে। রূপগঞ্জের দিকে যদি যান, দেখবেন আওয়ামী লীগের নেতা, এমপি-মন্ত্রীরা সব দখল করে ফেলেছে। এসব দখল করে একটা বিরূপ প্রকৃতি তৈরি করছে।

আওয়ামী লীগ দুর্নীতির মহোৎসব শুরু করেছে অভিযোগ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, করোনার নিয়েও তারা ব্যবসা করছে। মানুষের ন্যায়সঙ্গত অধিকার ধ্বংস করে দিয়েছে। পরিবেশ উন্নয়নের জন্য এই সরকার কত ভাগ বরাদ্দ দিয়েছে আপনারা কি বলতে পারবেন? খুব সামান্য। অথচ এই পরিবেশের জন্য আমাদের দেশনেত্রী খালেদা জিয়া অনেক বেশি বরাদ্দ দিয়েছিলেন। সমস্ত উপকূলবর্তী এলাকায় গাছ লাগানোর জন্য লাখ লাখ টাকা বরাদ্দ করেছিলেন। আমরা নতুন করে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে সারাদেশে বৃক্ষায়ন কর্মসূচি শুরু করেছি। এটাকে আমরা একটা সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করতে চাই।

পুরোনা রোগের জটিলতায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ‘অত্যন্ত অসুস্থ’  হয়ে পড়েছেন জানিয়ে তাকে ‘উন্নত চিকিৎসা’ দেওয়ার দাবি জানান মির্জা ফখরুল। এ্রভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিতসাধীন খালেদা জিয়ার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা তুলে ধরে তিনি বলেন, “আপনারা জানেন, করোনা হওয়ার পরে তাকে (খালেদা জিয়া) হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছিল। আল্লাহর রহমতে কোভিডের যে আক্রমণ, সেখান থেকে তিনি বেরিয়ে এসেছেন। কিন্তু দীর্ঘ ৪ বছর তার চিকিৎসা না হওয়ার কারণে, কারাগারে রাখার কারণে তিনি অনেকগুলো রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

তার মধ্যে প্রথম হল তার হার্টে সমস্যা তৈরি হয়েছে, তার কিডনিতে সমস্যা তৈরি হয়েছে, তার লিভারে সমস্যা তৈরি হয়েছে এবং তার একটা পুরনো অসুখ, যেটা তাকে অত্যন্ত কষ্ট দেয়- আর্থ্রাইটিসও রয়েছে। এই সবগুলো মিলিয়ে উনি অত্যন্ত অসুস্থ আছেন। ডাক্তাররা বলছেন, তিনি অত্যন্ত ভালনারেবল আছেন।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৭ এপ্রিল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন খালেদা জিয়া। এর মধ্যে তিনি ভাইরাস থেকে মুক্ত হলেও অন্যান্য জটিলতার কারণে এখনও তাকে সেখানে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এর মধ্যে তাকে উন্নত চিকিৎসাধীন বিদেশে নিতে চেয়েছিল তার পরিবার। কিন্তু দুর্নীতি মামলায় দ-িত খালেদা সরকারের নির্বাহী আদেশে বিশেষ শর্তে মুক্ত থাকায় তার বিদেশে যাওয়ার ‘আইনি সুযোগ নেই’ বলে সরকার জানিয়ে দিয়েছে। সে প্রসঙ্গ টেনে মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার ‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে’ খালেদাকে বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি।

সরকারকে আহ্বান জানাব, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা বাদ দিয়ে এই মহান নেত্রীকে, যিনি গণতন্ত্রের জন্য দীর্ঘ সংগ্রাম করেছেন, লড়াই করেছেন, তিনবারের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন এবং দেশকে উন্নত করার জন্য তার বহু অবদান রয়েছে, সেই নেত্রীর সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করা হোক, তাকে মুক্তি দেওয়া হোক। খালেদা জিয়ার আশু আরোগ্য কামনায় দেশবাসীর কাছে দোয়াও চান বিএনপি মহাসচিব। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৪২ নম্বর ওয়ার্ডের বেরাইদ এলাকায় বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

মহানগর উত্তরের সিনিয়র সহসভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিত আনজুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এএফএম আবদুল আলীম নকির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিএনপির বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সহ-সম্পাদক রওনাকুল ইসলাম টিপু, যুবদলের উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর, মহানগর উত্তরের এজিএম শামসুল হক, তুহিরুল ইসলাম তুহিন, এবিএমএ আবদুর রাজ্জাক উপস্থিত ছিলেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ