ঢাকা, রোববার 25 July 2021, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮, ১৪ জিলহজ্ব ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

নভোচারী নিয়ে পৃথিবীর কক্ষপথে ছুটছে চীনা মহাকাশযান

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: প্রথমবারের মতো তিন নভোচারী নিয়ে পৃথিবীর কক্ষপথে ঐতাহাসিক যাত্রা শুরু করেছে চীনা মহাকাশযান ‘লং মার্চ ২-এফ’। বৃহস্পতিবার এই রকেটে করে শেনঝু-১২ ক্যাপসুলটি সফল যাত্রা শুরু করে। মিশনটি গত পাঁচ বছরের মধ্যে চীনের প্রথম স্পেসফ্লাইট যা কোনো মানুষ বহন করছে। তিন নভোচারী নিজেদের মহাকাশ স্টেশনে তিন মাস অবস্থান করবে বলে জানিয়েছে বেইজিং।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ১২ মিনিটে চীনের উত্তর পশ্চিমের গানসু প্রদেশের জিউকুয়ান স্যটেলাইট উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে মহাকাশযানটি সফলভাবে যাত্রা শুরু করে। কোন সমস্যা ছাড়া রকেটটি উৎেক্ষপণ হওয়ায় উল্লাসে ফেটে পড়েন চীনের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

নতুন স্পেস স্টেশন নির্মাণে মূলত এই তিন নভোচারীকে পৃথিবীর কক্ষপথে পাঠিয়েছে চীন। ভুপৃষ্ঠ থেকে ৩৮০ কিলোমিটার উচ্চতায় ওই মডিউলে থেকেই স্টেশন নির্মাণ কাজ এগিয়ে নেবেন তিন নভোচারী। তাদের নাম হাইশেং, লিউ বোমিং এবং তাং হংবো। এই অভিযান নিয়ে অনেক প্রত্যাশা বেইজিং-এর।

রকেট সফলভাবে উৎপক্ষেপণের আগে চীনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, স্পেস স্টেশন নির্মাণ পর্যায়ে এটাই প্রথম নভোচারীবাহী অভিযান’।

নতুন এই অভিযানকে দেশটির সরকারের জন্যও মর্যাদার ব্যাপার বলে মনে করা হচ্ছে। কেননা আগামী ১ জুলাই প্রতিষ্ঠার ১০০ বছর উদযাপন করতে যাচ্ছে ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সামনে রেখে ইতোমধ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা শুরু করেছে তারা।

চীনের মহাকাশ কেন্দ্রের প্রাথমিক একটি কোর মডিউল নির্দিষ্ট কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করছে। এবারের মহাকাশযানটি গিয়ে তার সঙ্গে যুক্ত হবে। এরপরই সেই কোর মডিউলে মোট তিন মাস কাটাবেন তিন মহাকাশচারী। আর চীনের স্পেস স্টেশনের এই কোর মডিউলের নাম ‘তিয়ানহে’।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ