শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১
Online Edition

নিজ দেশ মায়ানমারে ফেরত যেতে গিয়ে নাফ নদীতে লাশ হলেন ৪ রোহিঙ্গা

শাহনেওয়াজ জিল্লু, কক্সবাজার দক্ষিণ : শরণার্থী ক্যাম্পের মানবেতর জীবন ছেড়ে নিজ দেশ মায়ানমারে ফিরে যেতে সপরিবারে উদ্যোগী হয়েছিলেন রোহিঙ্গা আব্দুস সালাম। কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে নাফ নদীতেই সলিল সমাধি হয় পুরো পরিবারের। ঘটনাটি ঘটেছে গত ১২ জুন শনিবার। ওই দিন টেকনাফের নাফ নদী থেকে নারীসহ তিনজনের লাশ উদ্ধার করে স্থানীয়রা। পরে গত ১৩ জুন রোববার সকালে আরও এক কন্যা শিশুর লাশ উদ্ধার করে। এ নিয়ে মোট ৪ জনের লাশের সন্ধান পাওয়া যায়। কিন্তু এখনও নিখোঁজ রয়েছে পরিবারটির প্রধানকর্তা আব্দুস সালাম।
নিহতদের মধ্যে একজনের নাম সমজিদা (৩৫) বলে জানা যায়। তিনি কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের আব্দুস সালামের মেয়ে। বাকি দুইজন মেয়ে শিশুর মধ্যে একজনের অনুমান বয়স ৬ বছর এবং আরেক জনের বয়স ২ বছর। শনিবার (১২ জুন) বেলা ২টার দিকে উপজেলার হোয়াইক্যং ইউনিয়নের খারাংখালী এলাকায় নাফ নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় মৃতদেহ তিনটি উদ্ধার করা হয় বলে জানিয়েছেন টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান। এছাড়াও গত রোববার সকালে হ্নীলা ইউনিয়নের নাফ নদী সংলগ্ন ফুলেরডেইল চর থেকে সর্বশেষ শিশুর লাশটি উদ্ধার করা হয়।
স্থানীয় একজন জেলে মাছ শিকারে গিয়ে ভাসমান তিনটি লাশ দেখতে পায়। খবর পেয়ে লাশগুলো উদ্ধার করে পুলিশ।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ