বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১
Online Edition

কবিতা

শরিফ হাসানাত-এর গুচ্ছছড়া

 

রসে ভরা আম-জাম 

আম পেকেছে জাম পেকেছে 

পথের ধারে গাছে

ফল কুড়াতে খোকা-খুকি 

গাছতলাতে নাচে।

 

পাকা আমে বাতাস লেগে 

ধুপ করে যেই পড়ে

অমনি খোকা দু'হাত মেলে 

টুপ করে অই ধরে।

বৃষ্টি ফোঁটা কাঁচা জামে 

রস ভরিয়ে তোলে

কালচে রঙে জামের থোকা

শাখায় শাখায় দোলে।

 

গাছের গোড়ায় খোকা-খুকি

পাখি বসা ডালে

মিষ্টি ফলের নেশায় থাকে

সকাল-সন্ধ্যাকালে।

 

 

ময়ূর নাচন 

 

বৃষ্টিকণার ছোঁয়া পেলে

ময়ূর নাচে পেখম মেলে

এদিক ওদিকে দৌড়ে ছুটে

কী অপরূপ দৃশ্য ফুটে।

 

নীল সবুজের রঙমাখা গায়

নৃত্য করে ময়ূর দু’পায়

মায়ের কোলে খুকি চড়ে

দেখছে নাচন হৃদয় ভরে।

 

 

মায়ের আঁচল 

 

আমার মায়ের আঁচলখানি

স্নেহের কোমল ছায়া

মন-নদীতে ঢেউ তুলে দেয় 

মাকে দেখার মায়া। 

 

আমার মায়ের হাসিখানি

ভীষণ ভালোবাসি

যাই যত দূর অভিমানে

তবু ফিরে আসি। 

 

আমার মায়ের দু’হাতখানি 

আদর সোহাগ ভরা

এই মমতার ¯িœগ্ধ ¯্রােতে  

যায় ভেসে যায় ধরা। 

 

 

আমাদের কুমকুম

 

আমাদের কুমকুম

চোখ ভরা ঘুম ঘুম

কাঁধে ব্যাগ নিয়ে ছুটে ইশকুলে। 

 

মা ডাকে শোন শোন

বই খাতা গোন গোন

ম্যাম এলে পড়াগুলো দিস্ খুলে। 

 

ক্লাস শেষে হই চই

ফেলে সব বই-টই

ছুটি পেয়ে মন ওড়ে আকাশে।  

 

মাঠে ঘাস তুলতুল

বেণী বাঁধা কুল চুল

কানামাছি খেলায় খুব পাকা সে।

 

 

ছোটন এলো গ্রামে

 

শহর থেকে আসলো ছোটন 

বেড়াতে গ্রাম গঞ্জে

চার দেয়ালের বন্দিশালায় 

মরছিল তার মন যে। 

 

কিচিরমিচির পাখির গানে

ছোটনের চোখ খুলল, 

আকাশ ছোঁয়া সারি সারি

গাছ দেখে হয় ফুল্ল। 

 

পুকুর সেঁচে কাঁদা মেখে 

ধরলো ছোটন কৈ মাছ 

মাছের কাঁটার গুঁতো খেয়ে 

বলল, এতো পৈশাচ? 

 

 

* শরিফ হাসানাত’র জন্ম: ১লা জানুয়ারি ১৯৯৫ হবিগঞ্জে। পিতা: হাজী আমির হোসাইন, মাতা: সালিমা হোসাইন। আট ভাই, এক বোন।  প্রকাশিত বই: ২টি। পুরস্কার : ১টি, গান পাখিদের ছড়া প্রতিযোগিতা-২০০১  (দৈনিক ইনকিলাব)। বর্তমান বসবাস : রামপুরা, ঢাকা।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ