রবিবার ২০ জুন ২০২১
Online Edition

ক্রিকেট লিগে আবাহনী-মোহামেডান মুখোমুখি আজ

স্পোর্টস রিপোর্টার : প্রিমিয়ার ক্রিকেট লিগে সপ্তম রাউন্ডের ম্যাচে আজ মাঠে নামছে ঐতিহ্যবাহী দুই দল আবাহনী-মোহামেডান। মিরপুরে দুপুর দেড়টায় মুখোমুখি মুশফিক ও সাকিবের দল। গত এক যুগের ইতিহাস বলছে উত্তেজনা ও মর্যাদার লড়াইয়ে আবাহনী এগিয়ে। তবে দলবদল হওয়াতে এক যুগে একেক জন খেলছেন একেক দলে। ২০০৭-০৮ মৌসুম থেকে ২০১৮-১৯ মৌসুম পর্যন্ত ২০টি ম্যাচ খেলেছে দুই দল। লড়াই হয়েছে একপেশে। মোহামেডানের ৫ জয়ের বিপরীতে আবাহনীর জয় ১৫টিতে। এবারের লিগেও আবাহনীর পারফরম্যান্স ঈর্ষণীয়। ৬ ম্যাচে ৫টিতে জিতেছে তারা। পারফরম্যান্সে অবশ্য পিছিয়ে রাখা যাবে না মোহামেডানকে। ৬ ম্যাচে তারা জিতেছে ৩টিতে, হেরেছে ৩টি। দলে আছে সাকিব আল হাসানের মতো বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার। তবে ফর্মে নেই তিনি এটাও উদ্বেগের। অন্যদিকে আবাহনীর অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম দুর্দান্ত ফর্মে। ফলে জমজমাট লড়াই হবে সেই আভাস পাওয়া যাচ্ছে। ঢাকার ক্রিকেটে আবাহনী-মোহামেডান খেলা মানেই তো উত্তেজনায় ঠাসা এক ম্যাচ। 

অবশ্য এসব অনেক আগের কথা, ইদানিংকালে যা রীতিমত উধাও। কেননা হালের আবাহনী-মোহামেডান রণ মানেই নিদারুণ একপেষে ক্রিকেট। যেখানে ম্যাচের আগেই বলে দেওয়া যায় কে জিততে যাচ্ছে আর কে হারতে যাচ্ছে। আরো পরিষ্কার করে বললে, ম্যাচের আগেই চোখ বন্ধ করে বলে দেওয়া যায়, আবাহনীর জয় সুনিশ্চিত। অতীতের সেই ধারাবাহিকতা হয়ত এবারও অটুট থাকছে। কেননা আজ যে আবাহনীকে মোহামেডান মোকাবেলা তারা রীতিমত দুর্বার। পক্ষান্তরে মোহামেডান শিবির নিদারুণ নিস্প্রভতায় ভরা! বাংলাদেশের বিশ্ব সেরা অলরান্ডার সাকিব আল হাসানকে নিয়ে এবার দল গুছিয়েছিল মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব। লক্ষ্য হয়ত একটিই ছিল, প্রিমিয়ার লিগের হারানো গৌরব পুররোদ্ধার। লিগের প্রথম তিন ম্যাচে টানা জয়ে সেই লক্ষ্যে অনেটা এগিয়েও গিয়েছিল সাদা-কালো শিবিরি। কিন্তু এরপর থেকেই সেই তথৈবচ দশা! কেবল হার আর হার। টানা তিন জয়ের পর ইতোমধ্যেই টানা তিন হার দেখে ফেলেছে সাকিব আল হাসান ও তার দল। হারগুলোও টেবিলের তলানির সব প্রতিপক্ষের বিপক্ষে! যা তাদের ঠেলে দিয়েছে পয়েন্ট টেবিলে ১২ দলের মধ্যে ছয়’এ । এরচেয়ে বড় দুঃসংবাদ হল, দলের কেউই ধারাবাহিক পারফর্ম করতে পারছেন না। এবং প্রাণভোমড়া সাকিবের সময়টি যাচ্ছে নিদারুণ ফর্মহীনতায়। কেননা লিগে এই পর্যন্ত ছয় ম্যাচ খেলে ব্যাট হাতে করেছেন ৭৩ রান। আর উইকেট সংখ্যা ৭টি। পক্ষান্তরে আবাহনী খেলে যাচ্ছে মারমার কাটকাট ক্রিকেট। ৬ ম্যাচে মাত্র ১ হার ও ৫ জয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে থেকে হুঙ্কার ছাড়ছে মুশফিকুর রহিম ও তার দল। দলের সব্ইা খেলছেনও দারুণ। তবে দলটির জন্য সবচেয়ে ভাল খবর হল অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম আছেন দারুণ ফর্মে। তাছাড়া তার জাতীয় দলের সতীর্থ নাইম শেখ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, নাজমুল হোসেন শান্ত, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, মোহাম্মদ সাইফ উদ্দিনের মত পারফর্মাররা তো আছেনই। সব মিলে অতীতের মত এই ম্যাচও হয়ত অসম একটি লড়াই দেখা যাবে। কিন্তু অনিশ্চিয়তার খেলা ক্রিকেটে শেষ বলে কিছু নেই। যে কোন মুহুর্তেই ম্যচের ভাগ্য ঘুরে যায়। তাই মোহামেডানও যে এই ম্যাচ দিয়ে হারের বৃত্ত ভাঙবে না তারই বা নিশ্চিয়তা কি?

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ