শুক্রবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১
Online Edition

ইসরাইলের বিরুদ্ধে ওয়াশিংটনে হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ

৩১ মে, টাইমস অব ইসরাইল, আরব নিউজ, ভয়েস অব আমেরিকা, ফিলিস্তিনী সংবাদপত্র : যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে ইসরাইলের বিরুদ্ধে হাজার হাজার মানুষ বিক্ষোভ করেছেন। প্রবল বৃষ্টি উপেক্ষা করে ফিলিস্তিনিদের সমর্থনে তারা এই বিক্ষোভ-সমাবেশে যোগ দেন। আমেরিকার বিভিন্ন অঙ্গ রাজ্য থেকে তারা ওয়াশিংটনে এসে সমবেত হন। বিক্ষোভকারীরা ইসরাইলের বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানান। 

ফিলিস্তিনিদের ওপর হত্যাযজ্ঞ বন্ধ করতে বিক্ষোভকারীরা ইসরাইল সরকারের প্রতি আহ্বান জানান এবং তেল আবিব যে বর্ণবাদী নীতি অনুসরণ করছে তার নিন্দা করেন। পাশাপাশি ফিলিস্তিনী ভূখণ্ডে ইসরাইলী দখলদারিত্বেরও অবসান দাবি করেন তারা। এছাড়া, বর্ণবাদী ইসরাইল সরকারকে যে অর্থনৈতিক সহায়তা দিয়ে আসছে মার্কিন সরকার তাও বাতিল করার দাবি তোলেন। 

ফিলিস্তিনী ভূখণ্ডে ইসরাইল যে যুদ্ধাপরাধ করে যাচ্ছে তা তদন্তে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতের যেসব আইনজীবী কাজ করছেন তাদেরকে হয়রানি বন্ধ ও নির্বিঘ্নে কাজ করার সুযোগ দেয়ার দাবি জানান সমাবেশে যোগদানকারীরা। 

এই সমাবেশ থেকে এ কথা পরিষ্কার হয়েছে যে, বাইডেন প্রশাসন ইসরাইলের লাগাম টেনে ধরতে আগ্রহী না হলেও সমাবেশে যোগ দেওয়া লোকজন ইসরাইলের আগ্রাসন থেকে ফিলিস্তিনকে রক্ষা করতে প্রস্তুত, সব রকমের সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে তারা তাদের ফিলিস্তিনিদের পাশে দাঁড়াতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

বিচারহীন আটকাদেশের প্রতিবাদে অনশনে ফিলিস্তিনী বন্দী : ইসরাইলী কারাগারে বন্দী দুই ফিলিস্তিনী বিচারহীন অবস্থায় তাদের প্রশাসনিক আটকাদেশের প্রতিবাদে অনশন করে চলছেন। রোববার টানা ২৬ দিন ধরে এই দুই বন্দী অনশন অব্যাহত রেখেছেন বলে জানায় প্যালেস্টেনিয়ান প্রিজনারস সোসাইটি (পিপিএস)। অনশনরত মোহাম্মদ আওয়াদ ও গাদানফার আবু আতওয়ান, দুই জনই অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পশ্চিম তীরের বাসিন্দা।

পশ্চিম তীরের বেথলেহেমের বাসিন্দা ২৫ বছর বয়সী মোহাম্মদ আওয়াদকে গত বছরের ২৫ অক্টোবর আটক করে ইসরাইলী নিরাপত্তা বাহিনী। পরে তার বিরুদ্ধে ছয় মাসের জন্য বিচারহীন প্রশাসনিক আটকাদেশ দেয়া হয়।

ইসরাইলি আদালতে মোহাম্মদ আওয়াদ তার বিচার শুরু করে মুক্তি দেয়ার বিষয়ে আবেদন করলে তা প্রত্যাখ্যাত হলে অনশন শুরু করেন তিনি।

অপরদিকে অক্টোবরেই পশ্চিম তীরের হেবরন শহরের বাসিন্দা ২৮ বছর বয়সী গাদানফার আবু আতওয়ানকে আটক করা হয়। পরে তার বিরুদ্ধে ছয় মাসের বিচারহীন প্রশাসনিক আটকাদেশ দেয়া হলে তিনি অনশন শুরু করেন।

ইসরাইলের বিরুদ্ধে ফিলিস্তিনী বন্দীদের প্রশাসনিক আটকাদেশের আওতায় তিন থেকে ছয় মাস বিচারহীন অবস্থায় কারাগারে বন্দী রাখার দীর্ঘ অভিযোগ রয়েছে। মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ইসরাইলের এই কৌশলকে ‘ দেউলিয়ামূলক কৌশল’ হিসেবে উল্লেখ করে তা বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে আসছে।

ফিলিস্তিন বন্দীরা তাদের বিরুদ্ধে অন্যায় এই আদেশের প্রতিবাদে অনশনের মতো প্রতিবাদী পদক্ষেপ গ্রহণ করছেন। 

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ