ঢাকা, রোববার 20 June 2021, ৬ আষাঢ় ১৪২৮, ৮ জিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী
Online Edition

শিমুলিয়া ছেড়ে গেল ৩টি ফেরি

সংগ্রাম অনলাইন ডেস্ক: দৌলতদিয়া-শিমুলিয়া-পাটুরিয়া ও বাংলাবাজার ফেরিঘাটে ঘরমুখী যেসব মানুষ আটকে পরেছেন তাদের বিশেষ বিবেচনায় পারাপারের ব্যবস্থা করা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কর্তৃপক্ষ।

ইতোমধ্যে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে ৩টি ফেরি চলাচল শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিসি। এছাড়া শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাট থেকে ১১ হাজার যাত্রী নিয়ে ছেড়ে গেছে পৃথক ৩টি ফেরি। ফেরি বন্ধ থাকার বিষয়টি না জানার কারণে ঘাটে এসে বিপাকে পড়েছেন হাজারো যাত্রী ও যানবাহন চালকরা।

এর আগে রাতে ফেরি বন্ধের সিদ্ধান্তের বিষয়টি জানতেন না অনেক যাত্রী। সকালে ঘাটে এসে ফেরি বন্ধের কথা শুনেই তাদের মাথায় হাত। যার ফলে ফেরিঘাটগুলোতে সকাল থেকেই ঘরমুখী মানুষের ঢল নেমেছে। এতে ঘাটে অপেক্ষারত যাত্রীদের ভোগান্তিও চরমে। লঙ্ঘিত হচ্ছে স্বাস্থ্যবিধিও। হঠাত মধ্য রাতে বন্ধের ঘোষণা কেন আসলো এমন প্রশ্নও তুলেছেন অনেক যাত্রী।

শিমুলিয়া ঘাটের বিআইডব্লিউটিএর ট্রাফিক ব্যবস্থাপক সাহাদাৎ হোসেন জানান, বিধিনিষেধে কর্মস্থল ত্যাগ করার বিষয়ে সরকারিভাবে বারণ থাকলেও ঈদকে সামনে রেখে দক্ষিণাঞ্চলের ঘরমুখো মানুষেরা সকাল থেকেই শিমুলিয়া ঘাটে আসতে শুরু করে। সকালে যাত্রীদের অতিরিক্ত চাপের কারণে শিমুলিয়া পুলিশ ও বিআইডব্লিউটিএর পক্ষ থেকে বিভিন্নভাবে মাইকিং করে ঘাট ত্যাগ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।

এর আগে গতকাল শুক্রবার রাতে বিআইডব্লিউটিসির বাংলাবাজার ঘাটের ব্যবস্থাপক মো. সালাউদ্দিন আহমেদ বলেন, রাত তিনটা থেকে আমরা আর কোনো ফেরি ছাড়ব না। কাল থেকে বন্ধ থাকবে ফেরি চলাচল। আপতত এর থেকে বেশি কিছু বলা যাচ্ছে না।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাট কর্তৃপক্ষ জানায়, বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌপথে সাধারণত ১৬টি ফেরি যাত্রী ও যানবাহন নিয়ে পারপার হয়। চলমান করোনাভাইরাসের লকডাউনে গত ১৪ এপ্রিল থেকে সীমিত করা হয় ফেরি চলাচল। লকডাউনের শুরুতে দিনের বেলায় দু–তিনটি ফেরি ছাড়া হলেও শুক্রবার থেকে যাত্রী ও জরুরি প্রয়োজনে আসা যানবাহনের চাপ বেশি থাকা প্রায় সব কয়টি ফেরি চলাচল করে এ নৌপথে। এসব ফেরিতে জরুরি প্রয়োজনে আসা যাত্রী, অ্যাম্বুলেন্স, পণ্যবাহী ট্রাক, কুরিয়ার সার্ভিসের গাড়ি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পারাপারের কথা থাকলেও সাধারণ যাত্রীদরেই বেশি পারাপার হতে দেখা যায়। এ কারণে বিআইডব্লিউটিসির পক্ষ থেকে আজ সকাল থেকে দিনের বেলায় ফেরি চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ রেখেছে।

অনলাইন আপডেট

আর্কাইভ